ঢাকা, শনিবার, ১৩ আগস্ট ২০২২, ২৯ শ্রাবণ ১৪২৯

বেন স্টোকস চেয়েছিলেন ভারত যেন ইংল্যান্ডকে ৪৫০ রানের লক্ষ্য ছুঁড়ে দেয়

২০২২ জুলাই ০৬ ১৪:২০:০৯
বেন স্টোকস চেয়েছিলেন ভারত যেন ইংল্যান্ডকে ৪৫০ রানের লক্ষ্য ছুঁড়ে দেয়

ভারতের বিপক্ষে রেকর্ড সংখ্যক রান তাড়া করে ম্যাচ জয়ের পর ইংল্যান্ড অধিনায়ক বেন স্টোকস বললেন তারা আরও বেশি রানের লক্ষ্য তাড়া করতে চেয়েছিলেন।

টেস্টে প্রথম ইনিংসে পিছিয়ে বড় ব্যবধানে পিছিয়ে পড়ার পরও যে অধিনায়ক আশা করেন প্রতিপক্ষে যেন তাদেরকে ৪৫০ রানের লক্ষ্য ছুঁড়ে দেয়, সে অধিনায়কের বুকের পাটা ভিন্ন ধাতুতে গড়া বলতেই হয়। হ্যা, ভারতের বিপক্ষে সদ্য সমাপ্ত এজবাস্টন টেস্টে এমনটিই চেয়েছিলেন বেন স্টোকস।

সিরিজ ২-২ এ ড্র হয়েছে। এজবাস্টনে আগে ব্যাটিং করে ভারত সংগ্রহ করেছিল ৪১৬ রান। টি-টোয়েন্টি মেজাজে ব্যাটিং করে দুর্দান্ত এক শতক হাঁকিয়েছিলেন রিশাভ পান্ট। জবাবে ইংল্যান্ডও পেয়েছিল জনি বেয়ারস্টোর সেঞ্চুরি। তবে ব্যর্থ হয়েছিলেন বাকি ব্যাটাররা। ফলে ২৮৪ রানে অলআউট হয়ে প্রথম ইনিংসেই ১৩২ রানে পিছিয়ে পড়ে ইংল্যান্ড।

দ্বিতীয় ইনিংসে ভারতের পক্ষে অর্ধশতক হাঁকান চেতেশ্বর পূজারা ও রিশাভ পান্ট। দ্বিতীয় ইনিংসে ভারত অলআউট হয় ২৪৫ রানে। ফলে ইংল্যান্ডের সামনে লক্ষ্য দাঁড়ায় ৩৭৮ রান। এজবাস্টনে এত বিরাট লক্ষ্য তাড়া করে ম্যাচ জয়ের রেকর্ড নেই। এমনকি ইংল্যান্ডের টেস্ট ইতিহাসেও এত বড় লক্ষ্য তারা করে জয়ের ইতিহাস নেই। তবুও স্টোকস চাচ্ছিলেন তারা যেন ৪৫০ রানের লক্ষ্য পায়।

অবশ্য ম্যাচ শেষে বুঝা গেছে স্টোকসের চাওয়া যথার্থ ছিল। কারণ ভারতের দেওয়া ৩৭৮ রানের লক্ষ্যই যে প্রায় আড়াই সেশন হাতে রেখেই ম্যাচে জয় লাভ করেছে ইংল্যান্ড। প্রথম ইনিংসের মতো দ্বিতীয় ইনিংসে দুর্দান্ত শতক হাঁকিয়েছেন বেয়ারস্টো। সেই সাথে জো রুটও হাঁকিয়েছেন শতক। তারাই ইংল্যান্ডকে এনে দেন ৭ উইকেটের জয়।

ভারতের দেওয়া লক্ষ্য প্রসঙ্গে স্টোকস বলেন, "আমি তো চেয়েছিলাম তারা (ভারত) যেন ৪৫০ রানের লিড পায়। দেখতে চেয়েছিলাম যে তাহলে আমরা কী করতে পারি। জানি না সীমানা কোথায় আছে। দেখুন, তৃতীয় ইনিংসই ভারতের জন্য চতুর্থ ইনিংস হয়ে দাঁড়িয়েছিল। কারণ তারা জানত না যে আমরা কীভাবে খেলব। এমন একটা পরিস্থিতিতে পড়া, যেখানে খেলা শেষ করার আগেই তারা নিজেদের নিয়ে ভয় পায় এটা অবিশ্বাস্য।"

নিজেদের পরিকল্পনা নিয়ে তিনি বলেন, "আমরা নতুন করে লিখতে চাচ্ছি টেস্ট কীভাবে খেলতে হয়, বিশেষ করে ইংল্যান্ডে। গত চার-পাঁচ সপ্তাহ ধরে আমরা ভিন্ন ভিন্ন পরিস্থিতিতে ভিন্ন ভিন্ন পরিকল্পনা করেছি এবং সেগুলো ধরে এগিয়ে গিয়েছি। যখন আপনি ঘোষণা দিয়ে খেলতে নামবেন যে আপনি কী চান ও কী অর্জন করবেন, তখন সবকিছু অনেক সহজ হয়ে যায়।"

পাঠকের মতামত:

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

খেলা এর সর্বশেষ খবর

খেলা - এর সব খবর



রে