ঢাকা, শুক্রবার, ৯ ডিসেম্বর ২০২২, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯

ব্রেকিং নিউজ: নির্বাচকদের বিরুদ্ধে অভিযোগ করায় মেহেদিকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করলো বিসিবি

২০২২ অক্টোবর ১৮ ০৯:৪৯:৩১
ব্রেকিং নিউজ: নির্বাচকদের বিরুদ্ধে অভিযোগ করায় মেহেদিকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করলো বিসিবি

বাংলাদেশ জাতীয় টি-২০ দলের অবস্থা বর্তমানে ভালো নেই। একের পর এক ম্যাচ হারতেই আছে। বিশ্বকাপের প্রস্তুতি ম্যাচেই বাজে ভাবে হেরেছে বাংলাদেশ। আর এর জন্য অনেকে নির্বাচকদের ভুল দল নির্বাচনকে দায়ি করছেন।

এরই মধ্যে আবার জাতীয় দলে সুযোগ না পেয়ে সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট দিয়েছিলেন বাংলাদেশের উঠতি পেসার মেহেদি হাসান রানা। তবে পোস্ট করার ২০ মিনিটের মধ্যেই তিনি মুছে ফেলেন পোস্টটি। কিন্তু তার আগেই যা হওয়ার হয়ে গেছে। পোস্টটির স্ক্রিনশট সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে যায়। পোস্টটিতে জাতীয় দলে সুযোগ না পাওয়ার পেছনে নির্বাচকদের দায়ী করেন এই উদিয়মান পেসার।

সেই অপরাধে এবার তাকে এক মাসের নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। আজ সোমবার সন্ধ্যায় বিসিবির এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানানো হয়।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, 'সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জাতীয় দলের নির্বাচক প্যানেলের বিরুদ্ধে অবমাননাকর মন্তব্য করায় মেহেদি রানাকে এক মাসের জন্য নিষিদ্ধ করা হয়েছে। তাকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়েছিল। এরপর তিনি বিসিবি কর্তৃপক্ষের সঙ্গে দেখা করেন এবং নিজের দোষ স্বীকার করে নেন। যেহেতু তিনি নিজের দোষ স্বীকার করে নিয়েছেন, সেহেতু তাকে এক মাসের নিষেধজ্ঞার শাস্তি দেওয়া হয়েছে। আগামী বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগেও (বিপিএল) তিনি খেলতে পারবেন। '

রানা তার ওই ফেসবুক পোস্টে লিখেছিলেন, 'কিছুদিন আগের কথা; আমি ক্রিকেট বোর্ডের একজন নির্বাচককে ফোন করেছিলাম অন্য কিছু জানার জন্য। উনি আমাকে ফোন করে বললেন, বাংলাদেশ ‘এ’ দলে যোগ দিতে। আগামীকাল থেকে অনুশীলন শুরু হবে। তার পরদিন দেখলাম যে প্র্যাকটিস শুরু হয়ে গেল, কিন্তু আমি নাই! আমি তো ওনাকে ফোন দিতেই পারি। ওনাকে ফোন করলাম। কমপক্ষে ১০ থেকে ১২ বার ফোন করেছি, ধরে নাই। তারপর আমি মেসেজ দিলাম। মেসেজ সিন করে রিপ্লাই দেয়নি। ....আসলেই যোগ্য মানুষগুলো যদি যোগ্য জায়গায় না থাকে, তাহলে ক্রিকেট কোনো দিন উন্নতি করবে না। '

সেই ফেসবুক পোস্ট নিয়ে তোলপাড় শুরু হলে ২৫ বছর বয়সী বাঁহাতি পেসার কালের কণ্ঠের কাছে দাবি করেন, তিনি নিজে ওই পোস্ট দেননি। তার ভেরিফায়েড পেইজের এডমিনকে বলেছিলেন, জাতীয় দলে সুযোগ না পাওয়ার হতাশা নিয়ে কিছু লিখতে। সেই সঙ্গে বলেছিলেন, কোনোভাবেই বোর্ডকে আক্রমণ করা যাবে না। মেহেদি রানার বক্তব্য, তার ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজের অ্যাডমিন অতি উৎসাহী হয়ে নির্বাচকদের প্রসঙ্গ টেনে এনেছেন। কিন্তু অবস্থান পাল্টেও পার পেলেন না মেহেদি রানা। শাস্তি তাকে পেতেই হলো।

পাঠকের মতামত:

খেলা এর সর্বশেষ খবর

খেলা - এর সব খবর



রে