ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ৬ আষাঢ় ১৪৩১

সদ্য সংবাদ

চমক দিয়ে কলকাতা নাইট রাইডার্সের অধিনায়কের নাম ঘোষণা

খেলা ডেস্ক . ২৪আপডেট নিউজ
২০২৩ মার্চ ২৮ ১৫:১৫:০৬
চমক দিয়ে কলকাতা নাইট রাইডার্সের অধিনায়কের নাম ঘোষণা

আইপিএলে এবারের আসরে শ্রেয়স আইয়ারের পরিবর্তে নীতিশ রানাকে স্ট্যান্ডবাই অধিনায়ক হিসেবে মনোনীত করেছে কলকাতা নাইট রাইডার্স (কেকেআর)। এর পর বাঁ-হাতি ব্যাটসম্যান নীতিশ রানা বলেছেন যে, এটি তাঁ কাছে নেতৃত্বের দক্ষতা প্রদর্শনের জন্য একটি বড় সুযোগ।

নীতিশ রানা ২০১৮ সাল থেকে কেকেআর-এ রয়েছেন এবং এর আগে সৈয়দ মুস্তাক আলি ট্রফির ১২টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচে তিনি তাঁর দল দিল্লিকে নেতৃত্ব দিয়েছেন। তাঁর নেতৃত্বে দিল্লি আটটি ম্যাচেই জয় পেয়েছে। বাকি পাঁচটি ম্যাচ হেরেছে। প্রসঙ্গত, পিঠের চোটে ভুগছেন শ্রেয়স আইয়ার। তাঁর অনুপস্থিতিতে কেকেআর-এর নেতৃত্ব দেওয়ার সুযোগ এসেছে রানার কাছে।

কেকেআর-এর অধিনায়ক হিসেবে তাঁর নাম ঘোষণা করার পর নীতিশ রানা আইএএনএস-কে বলেছেন, ‘২০১৮ সাল থেকে কেকেআর আমার বাড়ি এবং তাদের নেতৃত্ব দেওয়াটা আমার কাছে সম্মানের বিষয়। এই অধিনায়কত্বের দায়িত্ব আমার সর্বোচ্চ পর্যায়ে পারফর্ম করতে বিশ্বাস জোগাবে। এটি আমার নেতৃত্বের দক্ষতা প্রদর্শনের জন্য একটি দুর্দান্ত সুযোগ এবং আমি আমার সমস্ত অভিজ্ঞতা ব্যবহার করব। শুধু আমার সেরাটা দেওয়ার জন্য নয়, আমার দলের থেকেও সেরাটা বের করে আনতে হবে। আমি শ্রেয়সের দ্রুত সেরে ওঠার জন্য কামনা করি এবং আমি আমার সামনে নতুন চ্যালেঞ্জের অপেক্ষায় আছি।’

এর আগে ২০২৩ সালের আইপিএলের জন্য নীতিশ রানাকে দলের অধিনায়ক হিসেবে ঘোষণা করার সময়ে কেকেআর-ও বলেছিল যে, তারা শ্রেয়স আইয়ারের সেরে ওঠার এবং পরবর্তী সময়ে টুর্নামেন্টে অংশ নেওয়ার বিষয়ে আশাবাদী। যে কারণে নীতিশ রানাকে স্ট্যান্ড বাই অধিনায়ক হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে। নীতিশ হ্যান্ডি অফ-স্পিন বোলিংও করেন এবং ২০২১ সালে ভারতের হয়ে একটি ওডিআই এবং টি-টোয়েন্টিতে খেলেছিলেন। ২০১৮ সাল থেকে কেকেআর-এর ব্যাটিং অর্ডারে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন তিনি।

২৯ বছরের তারকা কেকেআরের হয়ে ইডেন গার্ডেনে ১৪ ইনিংসে ৪৫০ রান করেছেন। তাঁর গড় ৩৪.৬২ এবং স্ট্রাইক রেটে ১৪০.১৯। সামগ্রিক ভাবে তিনি আইপিএলের ৯১ ম্যাচে ২৮.৩২ গড়ে এবং ১৩৪.২২ স্ট্রাইক-রেটে ২১৮১ রান করেছেন। যার মধ্যে ১৫টি হাফসেঞ্চুরি রয়েছে।

অন্যদিকে শ্রেয়স আইয়ার আমদাবাদের নরেন্দ্র মোদি স্টেডিয়ামে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে বর্ডার-গাভাসকর ট্রফির চতুর্থ টেস্ট চলাকালীন পিঠের নীচের দিকে পুরনো চোটের জায়গায় সমস্যা অনুভব করেন। পিঠের নীচের একই জায়গায় চোটের কারণে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়ানডে এবং অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে প্রথম টেস্ট মিস করেছিলেন তিনি। যদিও তিনি অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে দ্বিতীয় এবং তৃতীয় টেস্টে খেলেছিলেন। তবে আমদাবাদে তৃতীয় দিনের খেলার পর শ্রেয়স আইয়ার পিঠের নীচের চোটের জায়গায় নতুন করে সমস্যা অনুভব করেন।

একটি মহলের তরফে দাবি করা হয়েছে, পিঠের চোটের জন্য শ্রেয়সকে অস্ত্রোপচার করাতে হবে বলেও ভাবনাচিন্তা চলছে। তবে এখনই অস্ত্রোপচার করতে চান না শ্রেয়স। কারণ অস্ত্রোপচার করলে মাসছয়েকের জন্য মাঠের বাইরে চলে যাবেন। সেক্ষেত্রে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে তো খেলতেই পারবেন না, একদিনের বিশ্বকাপেও খেলার সম্ভাবনা কার্যত শেষ হয়ে যাবে। বিশ্রাম এবং রিহ্যাবের মাধ্যমে সুস্থ হয়ে উঠতে চাইছেন বলে একাধিক সংবাদমাধ্যম নতুন করে দাবি করেছে।

২০২৩ আইপিএল ৩১ মার্চ থেকে শুরু হবে। কলকাতা ১ এপ্রিল টুর্নামেন্টের প্রথম ম্যাচ খেলবে। মোহালির পিসিএ স্টেডিয়ামে শিখর ধাওয়ানের নেতৃত্বাধীন পঞ্জাব কিংসের বিরুদ্ধে। কলকাতা তাদের প্রথম হোম ম্যাচ খেলবে ইডেন গার্ডেনে ৬ এপ্রিল রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের বিপক্ষে।

আপনার জন্য বাছাই করা কিছু নিউজ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



রে