ঢাকা, রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

৫ বিভাগে আগামী ৩ দিন ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা

জাতীয় ডেস্ক . ২৪আপডেট নিউজ
২০২৩ নভেম্বর ১৭ ১৪:২৭:০৩
৫ বিভাগে আগামী ৩ দিন ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা

বঙ্গোপসাগরে গভীর নিম্নচাপের প্রভাবে দেশের পাঁচ স্থানে ভারী বর্ষণের পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। বৃহস্পতিবার আবহাওয়া অধিদপ্তরের এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বৃহস্পতিবার বিকেল ৩টা থেকে পরবর্তী ৪৮ ঘণ্টায় ঢাকা, খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় ভারী থেকে অতি ভারী বর্ষণ হতে পারে।

ঘূর্ণিঝড় 'মিধিলি' হতে পারে, তাপমাত্রা ৪ ডিগ্রি কমতে পারে ঘূর্ণিঝড় 'মিধিলি' হতে পারে, তাপমাত্রা ৪ ডিগ্রি কমতে পারেএছাড়া ভারী বর্ষণে চট্টগ্রাম বিভাগের পাহাড়ি এলাকায় কোথাও কোথাও ভূমিধসের আশঙ্কা রয়েছে।

বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত গভীর নিম্নচাপের প্রভাবে বরিশাল ও চট্টগ্রামের অধিকাংশ এলাকা এবং রংপুর, রাজশাহী, ঢাকা, ময়মনসিংহ, সিলেট বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় মৃদু বৃষ্টি হতে পারে বলে আবহাওয়া অধিদপ্তরের বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে। এবং শক্তিশালী বাতাস। সেই সঙ্গে খুলনা, বরিশাল ও চট্টগ্রাম বিভাগে ভারী বর্ষণ হতে পারে।

ঘূর্ণিঝড় 'মিধিলি' হতে পারে, তাপমাত্রা ৪ ডিগ্রি কমতে পারে ঘূর্ণিঝড় 'মিধিলি' হতে পারে, তাপমাত্রা ৪ ডিগ্রি কমতে পারেবৃহস্পতিবার সকাল ৯টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, রাতের তাপমাত্রা অপরিবর্তিত থাকবে তবে দিনের তাপমাত্রা ১ থেকে ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস নামতে পারে।

পশ্চিম-মধ্য বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট নিম্নচাপ গভীর নিম্নচাপে রূপান্তরিত হয়েছে। একটি গভীর নিম্নচাপ উত্তর দিকে অগ্রসর হচ্ছে এবং একই এলাকায় ঘনীভূত হচ্ছে।

আবহাওয়াবিদ মো. আবদুর রহমান খান আজ দুপুর ১২টায় ইন্ডিপেন্ডেন্ট ডিজিটালকে বলেন, “গভীর নিম্নচাপটি ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হবে বলে আশা করা হচ্ছে। এটি ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত না হলেও গভীর নিম্নচাপটি বাংলাদেশে প্রভাব ফেলতে পারে।

বিশেষ আবহাওয়া বিজ্ঞপ্তি অনুসারে উপকূলীয় অঞ্চল এবং সমুদ্রবন্দরগুলির উপর দিয়ে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে৷ এ কারণে দেশের চারটি সমুদ্রবন্দরকে ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

সমুদ্রে নিম্নচাপ, ৪টি বন্দরে স্থানীয় সতর্ক সংকেত নং ৩ নং সমুদ্রে নিম্নচাপ, ৪টি বন্দরে স্থানীয় সতর্ক সংকেত নং ৩বিশেষ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বৃহস্পতিবার সকাল ৬টায় গভীর নিম্নচাপটি চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর থেকে ৭৮৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে, কক্সবাজার সমুদ্রবন্দর থেকে ৭৪৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে, মংলা সমুদ্রবন্দর থেকে ৬৫৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে এবং পায়রা সমুদ্রবন্দর থেকে ৬৫৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে অবস্থান করছিল। নিম্নচাপটি উত্তর-পূর্ব দিকে আরও ঘনীভূত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

গভীর নিম্নচাপটি ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হলে নাম দেওয়া হবে ‘মিধিলি’। মিধিলি নামটি মালদ্বীপের দেওয়া। আবহাওয়া অধিদপ্তর বলছে, এটি ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হলেও এর তীব্রতা খুব বেশি হবে না। অল্প সময়ের মধ্যে নিম্নচাপটি নিম্নচাপ থেকে নিম্নচাপ ও গভীর নিম্নচাপে পরিবর্তিত হয়েছে।

ভারতীয় আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছে, শুক্রবার সকাল নাগাদ ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হতে পারে গভীর নিম্নচাপটি। পরে শনিবার ভোর নাগাদ বাংলাদেশের মোংলা এবং খেপুপাড়ার মধ্যদিয়ে উপকূল অতিক্রম করতে পারে। উপকূল অতিক্রমের সময় এর গতি থাকতে পারে ৫৫ থেকে ৬৫ কিলোমিটার, যা ঝোড়ো হওয়ার আকারে সর্বোচ্চ ৭৫ কিলোমিটার পর্যন্ত বাড়তে পারে।

আপনার জন্য বাছাই করা কিছু নিউজ



রে