ঢাকা, রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০

২ বছরের জেল সহ আর যে কঠিন শাস্তি হতে পারে হাথুরুর

খেলা ডেস্ক . ২৪আপডেট নিউজ
২০২৩ নভেম্বর ৩০ ১৭:১৬:১৪
২ বছরের জেল সহ আর যে কঠিন শাস্তি হতে পারে হাথুরুর

বিশ্বকাপে বাংলাদেশ দল যখন সব দিক থেকে ব্যর্থ ঠিক তখনই এক অঘটন করে বসলো কোচ হাতুরা সিং। নিউজিল্যান্ডের সাথে ম্যাচ চলাকালীন সময়ে এক ক্রিকেটারকে হাথুরুসিংহে মাঠে পানি নিয়ে যেতে বলে। মাঠে পানি নিতে মাত্র দেরি হয় সে ক্রিকেটারের ৩০ সেকেন্ড। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে যান হাতুরা সিংহ। সেই ক্রিকেটারের গালে চড় মেরে বসুন হাথুরুসিংহে।সে সময় অন্যান্য প্লেয়ার এবং কোচ ডোনাল্ড লু শেখানো উপস্থিত ছিলেন।

ডোনাল্ডো তাকে চার্জ করেন কেন তিনি এই কাজটা করলেন। এই প্লেয়ার যখন কান্না করছিল তখন ডোনাল্ড নিকলি বলে ওঠেন কি করলেন আপনি । দুই সিনিয়র তখন পরবর্তীতে ওই ক্রিকেটারকে বুঝান এবং বলেন তারা বোর্ড প্রেসিডেন্ট কে ব্যাপারটি জানাবেন।তারপর তিনি কলকাতার তাজ হোটেলে উপস্থিত হয় নাজমুল হাসান পাপন এবং তিনি হাতুর সিংহকে শাসিয়ে বলেন তার আচরণ ঠিক করার জন্য।

সে ঘটনার পর অনুতাপ যদিও হাতুড়ের মধ্যে বিন্দুমাত্র নেই। এখনো বুক ফুলিয়ে হেঁটে যাচ্ছেন স্পন্সরশিপ সরিয়ে নিলেও সে জার্সি পড়ে ঘুরছেন কোন নিয়মের তোয়াক্কা না করে। অনেক ক্রিকেট বিশ্লেষক মনে করছেন হাতুড়ের নামে মানহানির মামলা নয় বরং তিনি একজনকে অ্যাবিউজ করার জন্য তার নামে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া উচিত ।এতে করে সাথে যে চুক্তি রয়েছে এ ব্যাপারটি কোন প্রভাব ফেলতে পারবে না।

দণ্ডবিধির ৫০০ ধারায় বলা হয়েছে, ‘যদি কোনো ব্যক্তি অন্য কোনো ব্যক্তির মানহানি করে, তবে ওই ব্যক্তি দুই বছর পর্যন্ত যেকোনো মেয়াদে বিনা শ্রম কারাদণ্ড অথবা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবে।’

চলতি বছর পাস হওয়া ‘সাইবার নিরাপত্তা আইন-২০২৩’-এর ২৯ ধারায় বলা হয়েছে, যদি কোনো ব্যক্তি ওয়েবসাইট বা অন্য কোনো ইলেকট্রনিক বিন্যাসে ১৮৬০ সালের দণ্ডবিধির ৪৯৯ ধারায় বর্ণিত মানহানিকর তথ্য প্রকাশ বা প্রচার করেন, তাহলে ওই ব্যক্তির এমন কর্মকাণ্ড হবে একটি অপরাধ। এর জন্য তিনি অনধিক ২৫ লাখ টাকা অর্থদণ্ডে দণ্ডিত হবেন।

এ আইনে মানহানির মামলায় কারাদণ্ডের বিধান রাখা হয়নি।

আপনার জন্য বাছাই করা কিছু নিউজ



রে