ঢাকা, রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০

বিতর্কিত সাবেক অধিনায়ক কে নিয়োগ দিল পিসিবি

খেলা ডেস্ক . ২৪আপডেট নিউজ
২০২৩ ডিসেম্বর ০১ ১৬:০১:০০
বিতর্কিত সাবেক অধিনায়ক কে নিয়োগ দিল পিসিবি

পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি) দল ঢেলে সাজানোর প্রক্রিয়ায় একটি বিস্ময়কর সিদ্ধান্ত নিয়েছে। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সিরিজ খেলতে জাতীয় দল যখন উড়ে যায়, তখন বিতর্কিত সাবেক অধিনায়ক সালমান বাটকে বোর্ডের প্যানেলে যুক্ত করা হল । শুধু তিনিই নন পাকিস্তানের সাবেক ক্রিকেটার কামরান আকমল এবং রাও ইফতেখার আনজুমকেও প্রধান নির্বাচক ওয়াহাব রিয়াজের অধীনে নিয়োগ দেওয়া হয়েছিল।

জানুয়ারিতে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে আসন্ন পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ দিয়ে তাদের মূল দায়িত্ব শুরু হবে। বাবর আজমা ১২ জানুয়ারি নির্বাচন প্যানেল শুরু করার আগে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ শেষ করবেন। তবে সালমান এবং আকমল যেহেতু ইতিমধ্যেই নিয়োগ পেয়েছেন, তাই তারা জুনিয়র দলের বিশেষীকরণের ক্ষেত্রে ব্যস্ত থাকবেন, যদিও এটি তাদের মূল দায়িত্বের বাইরে অতিরিক্ত কাজ।

আজ (শুক্রবার) এক বিবৃতিতে পিসিবি জানায়, ‘পিসিবি নিশ্চিত করছে যে ওয়াব রিয়াজের অধীনে কামরান আকমল, রাও ইফতেখার ও সালমান বাটকে কনসালটেন্ট মেম্বার হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। নিয়োগের পর থেকেই তারা নির্বাচক প্যানেলের হয়ে কাজ শুরু করবেন। তাদের প্রথম অ্যাসাইনমেন্ট শুরু হবে নিউজিল্যান্ডের সঙ্গে টি-টোয়েন্টি সিরিজ শুরু আগে থেকে।’

এর আগে নভেম্বরে পিসিবি ঘরোয়া টুর্নামেন্টগুলোতে ধারাভাষ্যের জন্য সালমান বাটকে নিযুক্ত করেছিল। যার অংশ হিসেবে তিনি এতদিন দেশটির চলমান ন্যাশনাল টি-টোয়েন্টি চ্যাম্পিয়নশিপে কর্মরত ছিলেন। এর আগে ২০১০ সালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট ম্যাচে স্পট ফিক্সিংয়ের দায়ে পাঁচ বছরের নিষেধাজ্ঞা পেয়েছিলেন তৎকালীন অধিনায়ক বাট, মোহাম্মদ আমির ও মোহাম্মদ আসিফ। নিষিদ্ধের মেয়াদ শেষে বাট ২০১৬ সালে ঘরোয়া ক্রিকেটেও ফিরেছিলেন, তবে তার আর জাতীয় দলে খেলা হয়নি।

এদিকে ২০০২-২০১৭ সাল পর্যন্ত ১৫ বছর ক্রিকেট ক্যারিয়ারে কামরান আকমল পাকিস্তানের হয়ে ৫৩টি টেস্ট, ১৫৭ ওয়ানডে ও ৫৮টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছিলেন। যেখানে সবমিলিয়ে ৬৮৭১ রান এবং উইকেটের পেছনে থেকে ৪৫৩টি আউটে অবদান রাখেন তিনি। ২০০৯ সালে পাকিস্তানের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জয়ী দলেরও সদস্য ছিলেন কামরান। এছাড়া রাও ইফতেখার ২০০৪-২০১০ সময়ে পাকিস্তান জাতীয় দলে খেলেছিলেন। একটি টেস্ট, ৬২ ওয়ানডে ও দুটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচে সবমিলিয়ে ৭৮ উইকেট পেয়েছিলেন তিনি। কামরানের মতো তিনিও ছিলেন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ দলে।

অন্যদিকে, পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক সালমান বাট আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারে ৩৩ টেস্ট, ৭৮ ওয়ানডে ও ২৪টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছেন। যেখখানে ১১টি শতকে তার ব্যাটে আসে ৫২০৯ রান।

আপনার জন্য বাছাই করা কিছু নিউজ



রে