ঢাকা, রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০

বিরাটের টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ার শেষ, তার ভবিষ্যৎ নিয়ে আলোচনা করছে বিসিসিআই

খেলা ডেস্ক . ২৪আপডেট নিউজ
২০২৩ ডিসেম্বর ০৩ ১১:৪৭:১৭
বিরাটের টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ার শেষ, তার ভবিষ্যৎ নিয়ে আলোচনা করছে বিসিসিআই

ক্রিকেট বিশ্বকাপে বিরাট কোহলিকে দেখা যাবে কি না, তা নিয়ে আলোচনা শুরু হয়েছে। সাদা বলের ক্রিকেট থেকে বিরতি নিয়েছেন বিরাট কোহলি। সাত মাস পর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। বিরাট সেখানে খেলবেন কি না সেটাই বড় প্রশ্ন। জানা গেছে, বোর্ড নেতারা বিরাটের সঙ্গে আলোচনা করে তার ভবিষ্যৎ নিয়ে সিদ্ধান্ত নেবেন।

বিরাট কোহলির টি-টোয়েন্টি ভবিষ্যৎ সবচেয়ে আলোচিত বিষয়গুলির মধ্যে একটি। বিরাট কোহলি আগামী বছর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ খেলতে পারবেন কি না সেদিকে নজর রাখছেন ক্রিকেট ভক্তরা। বিরাট কোহলির বিষয়ে এখনও চূড়ান্ত রায় দেয়নি বিসিসিআই। কিন্তু সংগ্রাম চলতেই থাকে। বিরাট কোহলি পরের বছর বিশ্বকাপ খেলবেন কি না সে বিষয়ে এখনও কোনও সবুজ সংকেত পাওয়া যায়নি। জানা যাক, বিরাটের সঙ্গে বোর্ড আধিকারিকদের বৈঠকের পরই তা জানা যাবে।

বিরাট কোহলির টি-টোয়েন্টি ভবিষ্যৎ সম্পর্কে বোর্ডের একটি সূত্র জানিয়েছে, 'বর্তমান পরিস্থিতিতে বিরাটকে বাদ দেওয়া কঠিন। তবে ম্যানেজমেন্ট তাদের সঙ্গে বসে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে। প্রশাসন একা কোনো সিদ্ধান্ত নিতে চায় না। তাই বৈঠকটি গুরুত্বপূর্ণ। চূড়ান্ত সিদ্ধান্তের আগে এটি করা উচিত। তাহলে বিরাটের ভবিষ্যৎ জানা যাবে বিশ্বকাপের টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে।

রোহিতের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ভবিষ্যত বিরাটের সাথে আলোচনায় রয়েছে, উভয় তারকাই ওয়ানডে বিশ্বকাপের পর সাদা বলের ক্রিকেট থেকে বিরতি নিয়েছিলেন। এমন পরিস্থিতিতে রোহিতের ভবিষ্যৎ নিয়েও আলোচনা হচ্ছে। রোহিত সম্পর্কে বোর্ড বলেছে, 'আমরা রোহিতকে বলেছি যে সে দলকে নেতৃত্ব দেবে এবং দলও গড়বে। তাই পুরো বিষয়টি দেখবেন রোহিত ও কোচ।

টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে কোহলির রেকর্ড ক্লাউড নাইনে। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি রান করেছেন তিনি। ১১৫ ম্যাচে মোট ৪ হাজার ৮৮ রান করেন তিনি। তার ব্যাটিংয়ের সুবাদে ভারত শেষ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জিতেছিল পাকিস্তানের বিরুদ্ধে। বিরাটের টি-টোয়েন্টি ব্যাটিং গড় ৫২.৭৪ এবং স্ট্রাইক রেট ১৩৭.৯৭। তিনি টি-টোয়েন্টিতে ৩৭টি হাফ সেঞ্চুরি ও একটি সেঞ্চুরি করেছেন। তার সর্বোচ্চ স্কোর ১২২।ফিল্ডিংয়েও বিরাটের অবদান অনেক বেশি। টি-টোয়েন্টি ফিল্ডিংয়ে তিনি ৫০টি ক্যাচ নিয়েছেন। ১৫ বার ম্যান অব দ্য ম্যাচ। বিরাটের নামে রয়েছে ৪ উইকেট।

কিন্তু বিরাটের সাফল্য দেখতে হলে আইপিএলের দিকে তাকাতে হবে। আইপিএলে তিনিই একমাত্র খেলোয়াড় যিনি শুরু থেকে একই দলে খেলেছেন। তিনি আইপিএলে ২৩৭টি ম্যাচ খেলে ৭২৬৩ রান করেছেন। সাতটি সেঞ্চুরি ও ৫০টি হাফ সেঞ্চুরি রয়েছে। সর্বোচ্চ রান ১১৩। ২০২৩ সালে, কোহলি ১৪ ইনিংসে ৬৩৯ রান করেছিলেন। তার রানের স্ট্রিং তাকে আইপিএল ইতিহাসের সবচেয়ে নির্ভরযোগ্য ব্যাটসম্যানদের একজন করে তুলেছে।

আপনার জন্য বাছাই করা কিছু নিউজ



রে