ঢাকা, শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০

আইপিএলে ঝড় তুলবেন যেসব দেশি ক্রিকেটার, এক নজরে দেখে নিন

খেলা ডেস্ক . ২৪আপডেট নিউজ
২০২৩ ডিসেম্বর ০৩ ১২:৪৫:২২
আইপিএলে ঝড় তুলবেন যেসব দেশি ক্রিকেটার, এক নজরে দেখে নিন

আগামী আইপিএলেও এমন অনেক ক্রিকেটারকে দেখা যাবে। প্রতিটি ফ্র্যাঞ্চাইজি যেমন বর্তমানের জন্য শক্তিশালী দল গড়ার চেষ্টা করবে, তেমনি ভবিষ্যতের পরিকল্পনাও থাকবে। সৈয়দ মোশতাক আলী ট্রফির (ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি প্রতিযোগিতা) পরে অনেকেই নিশ্চয়ই ফ্র্যাঞ্চাইজি স্কাউটদের নোটবুক লিখেছেন। বিজয় হাজারে ওয়ানডে টুর্নামেন্টও চলছে। আইপিএল ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলোও সেখানে নতুন খেলোয়াড়দের টার্গেট করছে।

ভারতীয় ক্রিকেটে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের ইতিবাচক ভূমিকাকে অবমূল্যায়ন করা যায় না। একটি উদাহরণ দেওয়া যাক। জাসপ্রিত বুমরাহ। তার উত্থান শুধুমাত্র আইপিএল থেকে। বর্তমানে ভারতীয় ফাস্ট বোলিংয়ের প্রধান অস্ত্র জাসপ্রিত বুমরাহ। হঠাৎ এই জিনিস কেন? পরের আইপিএলের প্রস্তুতি শুরু হয়ে গেছে। প্রতিটি দল তাদের ধরে রাখার এবং প্রকাশের তালিকা প্রকাশ করেছে। তবে ট্রেডিং উইন্ডো ১২ ডিসেম্বর পর্যন্ত খোলা থাকে। মূল ফোকাস ১৯ ই ডিসেম্বর। আইপিএল নিলামে কে বলতে পারে বুমরাহের মতো একজন নতুন খেলোয়াড় এখান থেকে উঠবে? দলগুলি ঘরোয়া ক্রিকেটে নিম্নলিখিত ধরণের খেলোয়াড়দের লক্ষ্য করতে পারে:

বুমরাহর মতো আরেকটি উদাহরণ দেওয়া যাক। সম্প্রতি দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে ভারতীয় দলে সুযোগ পেয়েছেন সাই সুদর্শন। অনেক দিন ধরেই ঘরোয়া ক্রিকেট খেলছেন সাই। তার পরিচিতি তেমন ছিল না। গত আইপিএলে গুজরাট টাইটান্সে ছিলেন। প্রথম ম্যাচে কেন উইলিয়ামসনের চোটে, সাই ​​সুদর্শনের জন্য 'সুযোগ' হয়ে দাঁড়ায়। আইপিএলে অভিষেক হয়েছে দারুণ একজন খেলোয়াড় হিসেবে। একের পর এক আকর্ষণীয় ইনিংস খেলেছেন। ভারতও এই দলের সঙ্গে খেলার সুযোগ পেয়েছে। সেটা আইপিএলের পর। ঘরোয়া ক্রিকেটেও ভালো খেলছেন তিনি। এবার জাতীয় দলেও সুযোগ রয়েছে। টাইটানসের হয়ে খেলার সুযোগ না পেলে এত তাড়াতাড়ি নির্বাচকদের তালিকায় তার নাম উঠত না।

আগামী আইপিএলেও এমন অনেক ক্রিকেটারকে দেখা যাবে। প্রতিটি ফ্র্যাঞ্চাইজি যেমন বর্তমানের জন্য শক্তিশালী দল গড়ার চেষ্টা করবে, তেমনি ভবিষ্যতের পরিকল্পনাও থাকবে। সৈয়দ মোশতাক আলী ট্রফির (ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি প্রতিযোগিতা) পরে অনেকেই নিশ্চয়ই ফ্র্যাঞ্চাইজি স্কাউটদের নোটবুক লিখেছেন। বিজয় হাজারে ওয়ানডে টুর্নামেন্টও চলছে। আইপিএল ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলোও সেখানে নতুন খেলোয়াড়দের টার্গেট করছে।

টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে যেমন পাওয়ার হিটার দরকার, তেমনি দলের প্রয়োজনে ইনিংস গড়তে পারে এমন ব্যাটসম্যানেরও প্রয়োজন। এবং এই ক্ষেত্রে, স্কাউটরা মূলত মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যানদের উপর ফোকাস করে। ওডিআই টুর্নামেন্ট থেকে বিজয় হাজারের মতো ব্যাটসম্যান পাওয়ার সম্ভাবনা বেশি। যারা ঝুঁকি না নিয়ে ইনিংস তৈরি করেন তারা স্কোরবোর্ড সচল রাখতে পারেন। অন্যদিকে কেউ ক্যামিও ইনিংস খেলে বাকিটা সামলে নিতে পারেন। এমনই কয়েকজন খেলোয়াড় আলোচনায় রয়েছেন। যার কারণে নিলামে ঝড় উঠতে পারে।

তেমনই বোলিংয়ের ক্ষেত্রেও। সকলেই উইকেট নিয়েই দলকে সাহায্য করেন, তা নয়। বোলিংয়েও পার্টনারশিপ প্রয়োজন। একদিক থেকে কেউ বেশ কিছু ডট বল করতে পারলে, উল্টোদিকের বোলারের উইকেট পাওয়ার সম্ভাবনা বাড়ে। বিজয় হাজারে ট্রফিতে তেমনই বোলারেই নজর দিচ্ছেন স্কাউটরা। কটা উইকেট নিচ্ছেন, তার চেয়েও বেশি করে দেখছেন, ইকোনমি। পেসারদের ক্ষেত্রে নজর থাকছে গতিতেও। ১৩৫-এর ওপর গতিতে কেউ যদি দুর্দান্ত ইকোনমি রাখতে পারেন, যে কোনও দলেরই সম্পদ হয়ে উঠতে পারেন। ১৯ ডিসেম্বর এমন ক’জনকে দেখা যাবে, এটুকু বলাই যায়।

আপনার জন্য বাছাই করা কিছু নিউজ



রে