ঢাকা, রবিবার, ২৪ জানুয়ারি ২০২১, ১১ মাঘ ১৪২৭

নায়ক মেহেদী ও ভিলেন মেহেদী

২০২০ নভেম্বর ২৫ ১২:১৩:১৩
নায়ক মেহেদী ও ভিলেন মেহেদী

গতকাল ম্যাচে বরিশালের সংগ্রহটা খুব একটা বড় হয়নি। জেমকন খুলনার সামনে ১৫৩ রানের লক্ষ্য দেয় তারা। দ্বিতীয় ইনিংসের পুরোটা জুড়েই এগিয়ে ছিল বরিশাল। তবে ম্যাচের মোড় ঘুরে গেছে শেষ ওভারে এসে। ওই ওভারে ২২ রান দরকার ছিল খুলনার। বরিশাল অধিনায়ক তামিম ইকবাল বল তুলে দেন মেহেদি হাসান মিরাজের হাতে।

শেষ ওভারে চার ছক্কা হাঁকিয়ে খুলনাকে ম্যাচ জিতিয়ে দেন আরিফুল হক। নির্ভরতার প্রতিদান দিতে ব্যর্থ হয়েছেন মিরাজ।দিনের প্রথম ম্যাচে শেখ মেহেদী হাসানের ব্যাটে-বলে ভর করে দারুণ এক জয় তুলে নেয় মিনিস্টার গ্রুপ রাজশাহী।

ওই ম্যাচে মেহেদী ব্যাট হাতে ৫১ আর বল হাতে ম্যাচের শেষ ওভারে তার নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ের কাছে হার মানে বেক্সিমকো ঢাকা। তবে দিনের শেষ ম্যাচে মেহেদী মিরাজ ব্যাট হাতে যেমন ব্যর্থ ছিলেন, বল হাতেও হতাশ করলেন দলকে। শেষ ওভারে চার ছয়ে ২৪ রান দিয়ে জিতিয়ে দেন জেমকন খুলনাকে।

জিরো থেকে হিরো হওয়া আরিফুল খেলেছেন ৩৪ বলে ৪৮ রানের অনবদ্য ইনিংস। প্রথম ২০ বলে ১১ থেকে শেষের ১৪ বলে আরও ৩৭ রান করেছেন ডানহাতি এ মিডলঅর্ডার ব্যাটসম্যান। তার বীরত্বপূর্ণ ব্যাটিংয়েই বরিশালকে ৪ উইকেটে হারিয়ে বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপের শুভসূচনা করল তারকাখচিত দল জেমকন খুলনা।

শেষ ওভারে সমীকরণ দাঁড়ায় ৬ বলে ২২ রান। হাতে আর কোন বোলার না থাকায় মেহেদি মিরাজকে বোলিংয়ে ডাকেন বরিশাল অধিনায়ক তামিম ইকবাল। আর এতেই হয় সর্বনাশ। মিরাজের প্রথম বলে লং অফ, দ্বিতীয় বলে স্ট্রেইট ছক্কা মেরে সমীকরণ ৪ বলে ১০ রানে নামিয়ে আনেন আরিফুল। তৃতীয় বলে এক রান হওয়ার সুযোগ থাকলেও সেটি নেননি তিনি। কেননা তার মাথায় ছিল ছক্কার মারে ম্যাচ শেষ করার পরিকল্পনা। ওভারের চতুর্থ ও পঞ্চম বলে ছক্কা হাঁকিয়ে বীরত্বের সাথেই তা করেন আরিফুল।

পাঠকের মতামত:

খেলা এর সর্বশেষ খবর

খেলা - এর সব খবর



রে