ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৯ জানুয়ারি ২০২১, ৬ মাঘ ১৪২৭

অবশেষে শত কষ্টের ফল পেলো মুশফিকরা

২০২০ ডিসেম্বর ০২ ২১:৩২:৪১
অবশেষে শত কষ্টের ফল পেলো মুশফিকরা

আজ ফরচুন বরিশালকে ৭ উইকেট হারিয়ে অবশেষে স্বস্তির জয় পেয়েছে বেক্সিমকো ঢাকা। টানা তিন ম্যাচ হারের পর মুশফিক বাহিনীর এমন জয়। এই জয়কে আত্মবিশ্বাস ফিরে পাওয়ার রসদ হিসেবে দেখছেন অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম।

১০৯ রানের সহজ লক্ষ্য তাড়া করতে নামলেও জয়টা সহজে হয়নি ঢাকার। লো স্কোরিং ম্যাচে কৌশলী খেলতে গিয়েই কিছুটা স্লো ক্রিকেট খেলেছে বলে জানালেন মুশফিক, ‘ছোট লক্ষ্য যখন তাড়া করবেন, তখন কিছুটা কৌশলী হতে হবে। ওই সময় প্রতিপক্ষের হারানোর কিছুই থাকে না। তারা ২০ ওভারে আক্রমণাত্মক ভূমিকাই পালন করবে। আপনাকে ক্যালকুলেটিভ রিস্ক নিতে হবে। তারা সেটা করেছে এবং আমরাও শুরুতে দ্রুত উইকেত হারিয়ে ফেলি। ফলে আমাকে একটু সাবধানী হতে হয়েছে।’

তবে জয়ের বিশ্বাস সবসময়ই ছিল এই উইকেটকিপারের, ‘আমার বিশ্বাস ছিল, আমি একপাশে থাকলে অন্য পাশ থেকে দুই-একজন ৩০-৪০ রানের একটা ইনিংস খেলতে পারলেই জিততে পারবো। আরও আগেই ম্যাচটা শেষ করতে পারলে আমাদের জন্য ভালো হতো, কারণ নেট রানরেটে আমরা পিছিয়ে আছি। কিন্তু জয় তো জয়ই, আমরা খুশি। এই জয় আমাদের পরের ম্যাচে আত্মবিশাসী করবে।’

জয়ের পর বোলারদের পারফরম্যান্স মনে করিয়ে দিলেন মুশফিক, ‘আমি বেশ আত্ববিশ্বাসী ছিলাম যে আমাদের বোলাররা তাদের কাজ ঠিকমতো করতে পারবে। বোলারদের ভালো বোলিং এবং ফিল্ডারদের ভূমিকার কারণে আমরা তাদের অল্পতে আটকে দিতে পেরেছি।’

বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপে শুরুর ম্যাচগুলোতে রান বেশি হলেও গত দুই দিনে রান উঠছে কম। মুশফিকের মতে, উইকেটগুলো যথেষ্ট রোদ পাচ্ছে না বলেই এমন অবস্থা, ‘আপনি যদি উইকেটের দিকে তাকান দেখবেন এটা ব্যবহৃত উইকেট। এখানে সূর্যের তাপ পড়েনি খুব একটা। একদিনের মধ্যে কিউরেটরের পক্ষে সম্ভব না একটা ফ্রেশ উইকেট তৈরি করা। কারণ ঘাসে তাদের অনেক পানি দিতে হয়। তার ওপর খুব একটা সূর্যের আলো পড়েনি। আমি মনে করি, কিউরেটরের জন্য বেশ কঠিন কাজ। দ্রুত পরিস্থিতি বুঝে যা করার আমাদেরই করতে হতো। যেটা আমরা করেছিও আজকে।’

পাঠকের মতামত:

খেলা এর সর্বশেষ খবর

খেলা - এর সব খবর



রে