ঢাকা, মঙ্গলবার, ৯ মার্চ ২০২১, ২৪ ফাল্গুন ১৪২৭

মারবেন না ভাই সাকিবকে বললো আফিফ

২০২১ জানুয়ারি ২৪ ১৭:৫২:৫৩
মারবেন না ভাই সাকিবকে বললো আফিফ

তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের প্রথম দুইটি জিতে ঢাকা থেকে চট্টগ্রামে এসেছে বাংলাদেশ দল। প্রতিপক্ষ খর্বশক্তির ওয়েস্ট ইন্ডিজ হলেও এক ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজ নিশ্চিত করা তামিম ইকবালের দল আজ ( ২৪ জানুয়ারি) জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে ফুরফুরে মেজাজেই অনুশীলন শুরু করে।

তবে অনুশীলনে ছিলনা কোন ঢিলেঢালা ভাব। তামিম ইকবাল থেকে সাকিব আল হাসান হয়ে প্রথম দুই ম্যাচে একাদশে থেকেও ব্যাটিং-বোলিং না করা সৌম্য সরকারও ব্যাটিং, বোলিংয়ে ঘাম ঝরিয়েছেন। তবে ব্যাট হাতে সাকিব আল হাসান মনযোগ দিয়েছেন নির্দিষ্ট একটি বিষয়কে।

সাকিব পেসারদের দিয়ে শুরু করা ব্যাটিং অনুশীলনের শেষটা করেছেন স্পিনারদের দিয়ে। শরিফুল ইসলাম, হাসান মাহমুদদের সামলে তাইজুল ইসলাম, মেহেদী হাসান মিরাজ, শেখ মেহেদী হাসান, আফিফ হোসেন ধ্রুবকে লম্বা সময় ধরে খেলেছেন কেবল সিঙ্গেলের উদ্দেশ্যে। যেখানে স্পষ্ট মাঠে স্ট্রাইক রোটেশনে কতটা মনযোগী টাইগার অলরাউন্ডার।

বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপে বল হাতে কিছুটা ছন্দে থাকা সাকিব ব্যাট হাতে হয়েছেন ধারাবাহিকভাবে ব্যর্থ। ফলে ব্যাট হাতে সাকিবকে চেনা ছন্দে দেখতে মুখিয়ে ছিল ভক্ত সমর্থকরা। বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে (বিকেএসপিতে) নিজেদের মধ্যে খেলা দুইটি প্রস্তুতি ম্যাচের একটিতে অবশ্য হাঁকিয়েছেন ফিফটি। ৮২ বলে খেলা ওই ইনিংসেই মিলেছিল স্ট্রাইক রোটেট করে খেলার ছাপ। ৫২ রানের ইনিংসে মেরেছেন সমান একটি করে চার, ছক্কা।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে ১৯ রানে থামলেও দ্বিতীয় ম্যাচে তার ব্যাট থেকে আসে অপরাজিত ৪৩ রানের ইনিংস। ২০১৯ বিশ্বকাপের দুর্দান্ত ফর্ম আবারও ফিরিয়ে আনতে পারবে কিনা সাকিব তা হয়তো সময় বলে দিবে। কিন্তু নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ফেরা টাইগার অলরাউন্ডারের জন্য এই ইনিংসটি ছিল আত্মবিশ্বাস তৈরির রসদ। ৫০ বলে খেলা ইনিংসটিতে চার হাঁকিয়েছেন চারটি।

এমনিতেই সাকিব ওয়ানডে ফরম্যাটে প্রান্ত বদলে বেশ দক্ষ। তবে আজ সাগরপাড়ের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে দেখা মিলে ভিন্ন এক সাকিবের। সকাল ১০ টায় শুরু হওয়া বাংলাদেশ দলের অনুশীলন চলে দুপুর একটা পর্যন্ত। ব্যাট হাতে সাকিব স্পিনারদের বিপক্ষে উইকেটের চারপাশে সিঙ্গেল, ডাবলস বের করার দিকে দিয়েছেন বাড়তি মনযোগ।আফিফ, তাইজুলদের ঝুলিয়ে দেওয়া অনেক বলই যেকোন আনকোরা ব্যাটসম্যান চাইলে সীমানা পার করতে পারতেন অনায়েসেই। তবে সেসব বলেও সাকিব ফাঁকা জায়গায় ফেলে নিজেই মুখ দিয়ে উচ্চারণ করছিলে ‘এক’, ‘দুই’। এমনকি বোলারকে উদ্দেশ্যে করে প্রশ্নও ছুঁড়ে দিচ্ছিলেন এটা দুই হবে তো, নাকি এক? বেশ কয়েকটি বলে পরাস্তও হয়েছেন তবে ছিলনা আক্ষেপের প্রতিচ্ছবি। আফিফ হোসেনের করা অফ স্টাম্পের একটি ডেলিভারিতে ক্যাচ দিয়েছেন উইকেটের পেছনে, যা অনায়েসেই তালুবন্দি করতে পারবেন উইকেটরক্ষক। ঐ বলেই আফিফকে উদ্দেশ্য করে হাসির ছলে জিজ্ঞেস করেন এটা তো চার হবে নাকি?

আধুনিক ক্রিকেটে স্ট্রাইক রোটেশনের প্রয়োজনীয়তা আলাদা করে বোঝানোর দরকার পড়েনা। ভিরাট কোহলি, কেইন উইলিয়ামসন, স্টিভ স্মিথরা প্রতিনিয়ত উদাহরণ তৈরি করছেন এমন কিছুর। টাইগার অলরাউন্ডার সাকিবও বাড়তি মনযোগী হচ্ছেন তা অনুশীলন দেখে নিশ্চিত করেই বলা যায়।

আফিফের বেশ বাজে এক বলেও কাভার অঞ্চলে ঠেলে দিয়ে এক রান নেওয়ার শ্যাডো করেন। আফিফ হাসতে হাসতে বললেন, ‘ভাই, এটা কিন্তু মারতে পারতেন!’ সিঙ্গেল নেওয়ার অনুশীলনে সাকিবের সোজা উত্তর, ‘না, আমিতো মারবো না।’ এই এক লাইনেই নিজেকে নিয়ন্ত্রণ করতে হবে জানান দিলেন সেটিরই। এই নিয়ন্ত্রণ বাড়ুক সাকিবের, উপকৃত হক বাংলাদেশ ক্রিকেট এমনটাই তো চাওয়া দেশের ক্রিকেট অনুরাগীদের।

সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডে ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে আগামীকাল (২৫ জানুয়ারি) সাগরিকার জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে। এই মাঠে ওয়ানডেতে একবারই মুখোমুখি হয় দুই দল। পূর্ণ শক্তির ক্যারিবিয়ায়নদের যে ম্যাচে মাত্র ৬১ রানে গুটিয়ে দিয়ে ৮ উইকেটের বড় জয় পায় বাংলাদেশ। পরিসংখ্যানের সাথে আগের দুই ম্যাচ জিতে সিরিজ নিশ্চিত, তার উপর ক্যারিবিয়ানদের খর্ব শক্তির দল। সব মিলিয়ে আগামীকালকের ম্যাচে তামিম ইকবালের বাংলাদেশ হট ফেভারিট হয়েই মাথে নামছে…

পাঠকের মতামত:

খেলা এর সর্বশেষ খবর

খেলা - এর সব খবর



রে