ঢাকা, রবিবার, ৭ মার্চ ২০২১, ২৩ ফাল্গুন ১৪২৭

ম্যাচ বন্ধ হওয়ার আজব কারণ

২০২১ জানুয়ারি ২৬ ১৯:১০:৩৩
ম্যাচ বন্ধ হওয়ার আজব কারণ

আফগানিস্তান-আয়ারল্যান্ডের মধ্যকার ম্যাচটা দীর্ঘসময় ধরে দেরী হলো কুয়াশার কারণে। কুয়াশার কারণে খেলোয়াড়দের সমস্যা হচ্ছিলো, এরকম কিছু নয়। আসলে ঘন কুয়াশার কারণে আবুধাবির হাইওয়ে বন্ধ রাখা হয়েছিলো। ফলে সময় মতো মাঠে আসতে পারেননি ক্রিকেটাররা। কী তাজ্জব কথা!

আফগানিস্তান-আয়ারল্যান্ডের মধ্যকার ম্যাচটা দীর্ঘসময় ধরে দেরী হলো কুয়াশার কারণে। কুয়াশার কারণে খেলোয়াড়দের সমস্যা হচ্ছিলো, এরকম কিছু নয়। আসলে ঘন কুয়াশার কারণে আবুধাবির হাইওয়ে বন্ধ রাখা হয়েছিলো। ফলে সময় মতো মাঠে আসতে পারেননি ক্রিকেটাররা। কী তাজ্জব কথা!

শুনতে অবাক লাগলেও, এর চাইতেও অবাক করা কারণে ম্যাচ বাতিল হয়েছে। আজ আপনাদের জন্যে এমন কিছু ক্রিকেট ম্যাচের গল্প নিয়ে এসেছি, যেগুলোতে উদ্ভট সব কারণে ম্যাচ বাতিল হয়েছে।

তুষারপাতডার্বিশায়ার আর ল্যাঙ্কাশায়ারের ঐ ম্যাচটা ছিল তুষারপাতের কারণে বাতিল হওয়া প্রথম কোন ক্রিকেট ম্যাচ। বাক্সটনের সেই ম্যাচে তৃতীয় দিনে শুরুতে দেখা গেল মাঠে তুষারপাত। ফুটবলে এই দৃশ্যটা হামেশাই দেখা গেলেও, ক্রিকেটে এই দৃশ্য একদম নতুন। অগত্যা, ম্যাচটা বাতিল করতে হয় তাঁদের।

সূর্যের আলোবৃষ্টিতে খেলা বন্ধ হওয়ার কথা শোনা যায়, তাই বলে সূর্যের রশ্মিতেও খেলা বন্ধ? ১৯৯৫ সালে ওল্ড ট্রাফোর্ডে হয়েছিল এমনটাই। ইংল্যান্ড আর ওয়েস্ট ইন্ডিজের মধ্যকার ম্যাচে খেলা মাঠে গড়াতে দেরি হয় স্রেফ সূর্যের আলো বেশি ছিল এই কারণে।

তাপ২০০৭ সালের ‘ফ্রেন্ডস প্রভিডেন্ট ট্রফি’ র সেমিফাইনালের কথা। ডার্বিশায়ার আর ইয়োর্কশায়ারের সেই ম্যাচটা ছিল দিবারাত্রির ম্যাচ। ইয়োর্কশায়ারের দেওয়া ২৫৪ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে ডার্বিশায়ারের ব্যাটসম্যানেরা দেখল মাঠে উত্তাপেই দাড়ানো যাচ্ছেনা। ফলে ম্যাচ ৪৫ মিনিট বন্ধ রাখা হয়। পরে অবশ্য ডাকওয়ার্থ লুইস মেথডে ইয়োর্কশায়ার জিতে যায়।

ঠাণ্ডাতাপে যদি খেলা বন্ধ হয়, ঠান্ডাই বা বাদ যায় কেন? ১৯৯৫ সালের এজবাস্টন টেস্টই এই প্রশ্নের উত্তর দিয়ে দেয়। ম্যাচে এতই ঠান্ডা ছিল যে দুইবার করে খেলোয়াড়দের কফি খাওয়ানো হচ্ছিল। তবে এ ম্যাচ বাতিল হয়নি। ঠাণ্ডায় ম্যাচ বন্ধের ঘটনা খুঁজতে হলে ফিরে যেতে হবে ১৯৮১ সালে; এসেক্স আর ফেনারের মধ্যবর্তী ম্যাচে। সে ম্যাচে হঠাৎ তাপমাত্রা নামতে শুরু করলে সবাই দুটি করে সোয়েটার পরে ফেলেন। তবে এতেও কাজ না দিলে ‘বিপজ্জনক’ পরিস্থিতির কারণ দেখিয়ে আম্পায়ারেরা ম্যাচ বন্ধ করে দেন।

মরু-ঝড়শারজাহতে ভারতের এক ম্যাচ একবার সাময়িক বন্ধ হয়েছিল মরু-ঝড়ের কারণে । মরু-ঝড় অবশ্য মরুভূমির দেশগুলোতে সাধারণ ব্যাপার। হঠাৎ পরিবেশ অশান্ত হয়ে বালিগুলোকে অশান্ত করে ফেলে। যা হোক, সে ম্যাচেও শচীন উইকেটে থাকার সময় মরু ঝড় উঠলে ম্যাচ ১৫ মিনিটের জন্যে বন্ধ হয়ে যায়।

মৃত্যু১৯৫১-৫২ এর সেই টেস্টটা ভালই চলছিল। চিপকে ব্যাট করছিল ইংল্যান্ড। হঠাৎ ইংল্যান্ড খবর পায় রাজা ষষ্ট জর্জ করোনারি থ্রম্বোসিসে মারা গেছেন। ম্যাচের পরদিন তখুনি বিশ্রাম ঘোষনা করা হয়। ম্যাচটা অবশ্য ভারতের কাছেও স্মরণীয় হয়ে আছে, এটা তাঁদের প্রথম কোন টেস্ট জয়।

আবারও মৃত্যু১৯৮৪ সালের সে সফরে ভারত গিয়েছিল পাকিস্তানে। মহিন্দর অমরনাথের নেতৃত্বে সিরিজ চলাকালীন ভারতীয় দল হঠাৎ খবর পেল ভারতের আইকনিক নেত্রী ইন্দিরা গান্ধী মারা গেছেন । এরপর পুরো সিরিজ বাতিল করে দিয়ে দেশে ফিরে আসে ভারত।

এবার মাঠেই মৃত্যুএবারের ঘটনা এক ক্রিকেটারের- ফিলিপ হিউজেস। মাথায় বলের আঘাত লেগে যিনি ঢলে পড়েছিলেন মৃত্যুর কোলে। সে সময়ে পাকিস্তান আর নিউজিল্যান্ডের মধ্যে চলছিল টেস্ট ম্যাচ। এ খবর শোনার পর ম্যাচের দ্বিতীয় দিনের খেলা বাতিল করে অতিরিক্ত দিন যোগ করা হয়।

খাবার১৯৯৪-১৯৯৫ এর সেই ক্যাসল কাপের ম্যাচে ডেরিল কুলিনান বলকে বাউন্ডারি হাকালে তা গিয়ে পড়ে মাঠের ক্যালামারি নামক খাবার তৈরির গরম প্যানের উপর। এরপর সেই বল ঠান্ডা হতে দশ মিনিট সময় লাগে, খেলা থাকে বন্ধ। সেসময় রিপোর্টে বলা হয়, ‘গরম ক্যালামারির জন্যে খেলা বন্ধ।’

ড্রেইন১৯৮৮ এর হেডিংলির সে ম্যাচে অ্যামব্রোস গ্রাহাম গুচকে বল করতে গিয়ে হঠাৎ দাঁড়িয়ে পড়েন। তিনি টের পান তার পায়ে পানিসদৃশ কিছু বাধছে। কিন্তু মাঠের মধ্যে পানি আসবে কোত্থেকে? পরে দেখা যায়, মাঠের নিচ দিয়ে চলে গেছে ড্রেইন আর তার পানিই মাঠে উঠে আসছে। পরে এটা মেরামত করা হয় আর খেলা কিছুক্ষণ বন্ধ থাকে।

খেলনারোজ বোলে সে ম্যাচে হ্যাম্পশায়ার আর সাউথ উইলসের মধ্যকার ম্যাচ চলছিল। হঠাৎ এক দর্শক চিৎকার করে ওঠেন আর বলেন পাশের গলফ কোর্সে তিনি বাঘ দেখেছেন। সাথে সাথে খেলোয়াড়েরা নিরাপদ আশ্রয়ে চলে যান আর হেলিকপ্টারে করে নিরাপত্তারক্ষীরা এলে দেখা যায় ওটা ছিল একটা খেলনা বাঘ।

যুদ্ধবিমানদ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময়কার ঘটনা এটা। লর্ডসে আর্মি আর আরএএফ এর মধ্যকার ম্যাচে হঠাৎ করে মাঠের ওপরে দেখা যায় জার্মান যুদ্ধবিমান। সাথে সাথে দর্শক আর খেলয়াড়েরা নিরাপদ আশ্রয়ে চলে যায়। কিন্তু এরপর যুদ্ধবিমানটি সরে যায় কারো কোন ক্ষয়ক্ষতি হয়নি।

কুকুরএ ঘটনার অবশ্য একটা দুটো উদাহরণ দেওয়া সম্ভব না। মাঠে কুকুর ঢুকে যাওয়ায় খেলা বন্ধ হওয়া শ্রীলঙ্কা আর ভারতের জন্যে মোটামুটি স্বাভাবিক একটা ঘটনা। ২০০৯ আইপিএল, ১৯৯৯ এর ট্রেন্ট ব্রিজ টেস্ট সহ আরো অনেক জায়গাতে কুকুর মাঠে ঢুকে যাওয়ার জন্যে খেলা বন্ধ থেকেছে।

পশুকুকুর মাঠে ঢুকে যাওয়ার জন্যে খেলা বন্ধ তো হয়েছেই, এছাড়াও অন্য পশুরাই বা কম যাবে কেন? লর্ডসে পিটার আর সিনবাদের ম্যাচে একবার খেলা বন্ধ হয়েছিল বিড়ালের জন্যে, এমসিসি আর মহারাষ্ট্রের ম্যাচে একবার খেলা বন্ধ হয়েছিল বানরের জন্যে, এমনকি চেস্টার লি স্ট্রিটে ইংল্যান্ড আর ওয়েস্ট ইন্ডিজের মধ্যকার ম্যাচ বন্ধ হয় মাঠে একটা হাঁস ঢুকে পড়ে সেজন্যে।

মৌমাছিএ ঘটনাটা অবশ্য ২০১৯ বিশ্বকাপেরই। শ্রীলঙ্কা আর দক্ষিণ আফ্রিকার সে ম্যাচে ৪৮ তম ওভারে বল করতে গিয়ে ক্রিস মরিস হঠাৎ থেমে যান আর দেখেন মাঠে ঢুকে পড়েছে একঝাক মৌমাছি। সাথে সাথে খেলোয়াড়েরা মাঠে উপুড় হয়ে শুয়ে পড়েন, এতে খেলা বন্ধ ছিল বেশ কিছুক্ষণ।

টোস্ট তৈরিহ্যাঁ, টোস্ট তৈরির জন্যেও খেলা বন্ধ হয়েছে। শেফিল্ড শিল্ডের সে ম্যাচ ছিল নিউ সাউথ ওয়েলস আর কুইন্সল্যান্ডের মধ্যে। ম্যাচের মধ্যে হঠাৎ স্টুয়ার্ট ল স্ট্যান্ডে ফায়ার এলার্ম বেজে উঠলে আম্পায়ার খেলা থামিয়ে দেন। অনুসন্ধান করতে গিয়ে দেখা যায় নাথান লিঁও টোস্ট তৈরি করতে গিয়ে এই বিপত্তি বাঁধিয়েছেন।

খাবার ডেলিভারিতে বিলম্ব২০১৭ সালে দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে যায় বাংলাদেশ। সফরের ব্লুমফন্টেইনের টেস্টে লাঞ্চের সময় দেখা গেল খাবার এখনও ডেলিভারী হয়নি। পরে খাবার ডেলিভারীতে দশ মিনিট বিলম্বের জন্যে লাঞ্চ দেরীতে হয়, আর এতে মাঠে খেলাও গড়ায় দেরীতে।

গাড়ি২০১৭ এর রঞ্জি ট্রফির সে ম্যাচটা ছিল দিল্লীর সাথে উত্তর প্রদেশের। ম্যাচে খেলছিলেন গৌতম গম্ভীর আর ঈশান্ত শর্মার মত তারকারা। ম্যাচ চলাকালীন দেখা যায় একজন মাঠে ঢুকে পড়েছেন আস্ত গাড়ি নিয়ে। পরে অবশ্য মাঠে ঢুকে পড়া গিরিশ শর্মাকে নিরাপত্তারক্ষীরা আটক করে পুলিশে হস্তান্তর করে।

পাঠকের মতামত:

খেলা এর সর্বশেষ খবর

খেলা - এর সব খবর



রে