ঢাকা, সোমবার, ১৯ এপ্রিল ২০২১, ৬ বৈশাখ ১৪২৮

৫ উইকেটের রের্কড ভেঙ্গে নতুন রের্কড গড়লেন অক্ষর

২০২১ ফেব্রুয়ারি ২৫ ১৩:২৩:৩৫
৫ উইকেটের রের্কড ভেঙ্গে নতুন রের্কড গড়লেন অক্ষর

অবিষেক এর শুরু দিগে কিছুটা বেগ পেতে হয়েছে অক্ষর প্যাটেলের তবে তিনি ছিলেন একজন পুরোদস্তুর পেস বোলার। দুর্দান্ত গতি আর লাইন-লেন্থ মিলিয়ে খুব একটা খারাপ বল করতেন না। সর্বনাশা হাঁটুর ইনজুরি কেঁড়ে নেয় অক্ষরের পেসার হবার স্বপ্ন। তাই বলে থেমে থাকেননি তিনি। বাঁহাতি স্পিন দিয়ে ঠিকই ভারত জাতীয় দলে জায়গা করে নিয়েছেন। নীল জার্সিতে ইতোমধ্যেই খেলে ফেলেছেন ৩৮ টি ওয়ানডে এবং ১১ টি টি-টোয়েন্টি।

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে দ্বিতীয় টেস্টে স্পিনার হিসেবে অভিষেক ঘটে সেই প্রাক্তন পেসার অক্ষরের। ক্যারিয়ারের প্রথম টেস্ট খেলতে নেমেই তিনি শিকার করেছিলেন ৫ উইকেট। সিরিজের তৃতীয় টেস্টের প্রথম দিন আবারো শিকার করলেন ৬ উইকেট। আহমেদাবাদের দিবা-রাত্রির টেস্টে ম্যাচে ইংল্যান্ডকে প্রথম দিন মাত্র ১১২ রানে গুটিয়ে দিতে রেখেছেন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা।

প্রথম ইনিংসে ইংলিশদের ৬ ব্যাটসম্যানের মধ্যে ৪ উইকেটই নিয়েছেন আর্ম বল করে। গতির সঙ্গে সোজা বল করে লেগ বিফোররে ফাঁদে ফেলেছেন জ্যাক ক্রলি, জনি বেয়ারস্টোকে । বেন ফোকস আর জফরা আর্চারকেও বোকা বানিয়েছেন এই আর্মারেই। ক্যারিয়ারে মাত্র দুই টেস্ট খেলেই অক্ষরের উইকেট সংখ্যা এখন ১৩টি! যে কোন বোলাররের জন্য যা ঈর্ষণীয় সাফল্য।

নিঁখুত আর্ম বল রপ্ত করার রহস্য উদঘাটন করেছেন অক্ষর নিজেই। ক্রিকেট ক্যারিয়ারের শুরু দিকে পেস বোলার অক্ষর বর্তমানে স্পিনার অক্ষরকে গতির সঙ্গে মিলিয়ে নিখুঁত আর্ম বল করতে সাহায্য করেছে বলে মনে কেরন তিনি। এ ছাড়া নিখুঁ আর্ম বল করার ক্ষেত্রে ভারতের ন্যাশনাল ক্রিকেট একাডেমীর কোচ ভেঙ্কাটাপথী রাজু স্যারের ভূমিকা রয়েছে বলেও জানান এই স্পিনার।

প্রথম দিনের খেলা শেষে অক্ষর বলেন, 'আমি নিজে নিজেই আর্ম বল করতে শিখেছি। এই ডেলিভারিটি আয়ত্ত করতে আমি এনসিএতে (ন্যাশনাল ক্রিকেট একাডেমী) ভেঙ্কট স্যার (ভেঙ্কটাপথী রাজু) এর সঙ্গে কাজ করেছি। আমি আমার ক্যারিয়ারের প্রথম দিনগুলিতে একজন পেস বোলার ছিলাম, এ কারণেই আমার বোলিংয়ের স্টাইল কিছুটা দ্রুত।'

আরো যোগ করে তিনি বলেন, 'সুতরাং, আমি মনে করি আমার একজন ফাস্ট বোলার হওয়ার অভিজ্ঞতাও আমাকে আর্ম বল বল করতে সহায়তা করে। আমি কেবল হাঁটুর সমস্যার কারণে নিজেকে স্পিনারে রূপান্তরিত করেছি, তবে আমার প্রথম দিনগুলিতে আমি যা করতাম তা আমাকে এখন আর্ম বলগুলি আরও দ্রুত করতে সহায়তা করে।'

ইংল্যান্ডের বিপক্সে দ্বিতীয় টেস্টে ৫ উইকেট পাওয়ায় তৃতীয় টেস্টে ভালো করার ব্যাপারে বেশ আত্মবিশ্বাসী ছিলেন অক্ষর। তাই বলে যে, প্রথম দিনেই ৬ উইকেট শিকার করে বসবেন এমনটা মোটেও প্রত্যাশা করেননি এই বাঁহাতি স্পিনার। কেননা প্রথম দিনেই যে ভারত বোলিং করবে এমনটার নিশ্চয়তা ছিল না।

এ প্রসঙ্গে অক্ষর বলেন, 'তবে সত্যি কথা বলতে, আমি প্রথম দিনেই ছয় উইকেট পাওয়ার আশা করিনি। কারণ আমরা প্রথমে বোলিং করব এমন কোনও নিশ্চয়তাও ছিল না। তবে আগের টেস্টে আমি পাঁচ উইকেট নিয়েছিলাম এবং খুব ভাল বোলিং করেছিলাম। তাই ভালো করার ক্ষেত্রে সবসময়ই আমার আত্মবিশ্বাস ছিল।'

পাঠকের মতামত:

খেলা এর সর্বশেষ খবর

খেলা - এর সব খবর



রে