ঢাকা, সোমবার, ১৯ এপ্রিল ২০২১, ৬ বৈশাখ ১৪২৮

মায়ের জন্য আবারও মাঠে ফিরতে চান শাহাদাত, আবেদন বিসিবির কাছে

২০২১ ফেব্রুয়ারি ২৮ ১৪:৫৯:০৭
মায়ের জন্য আবারও মাঠে ফিরতে চান শাহাদাত, আবেদন বিসিবির কাছে

লর্ডসের অনার্স বোর্ডে নাম লেখানো সেদিনের সেই টগবগে তরুণ পেসার শাহাদাত হোসেন রাজীবের নামটার পাশে আজ একাধিক লাল কালির দাগ। তবে, অনুতপ্ত শাহাদাত নিরুপায় হয়ে বিসিবির নিকট আবেদন জানিয়েছেন পুনরায় প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেটে ফিরে আসার জন্য।

গেল জাতীয় লিগের আসরে সতীর্থ আরাফাত সানির সাথে বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়েন ৩৩ বছরের শাহাদাত। বিবাদের এক পর্যায়ে সানীকে শারীরিকভাবে আঘাত করে বসেন তিনি। অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনাটির পটভূমি ছিল খুলনার শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ঢাকা বনাম খুলনার ম্যাচটা।

এই অপরাধের জন্য রাজীবকে ৫ বছরের নিষেধাজ্ঞা দেওয়ার পাশাপাশি ৩ লাখ টাকা অর্থদন্ড পরিশোধ করার আদেশ দেয় বিসিবি। এদিকে, অভিজ্ঞ এই ক্রিকেটারের মা ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়েছেন। এতে করে বড্ড বেশি বিমর্ষ হয়ে পড়েছেন তিনি। 'ক্রিকবাজ' -এ দেওয়া এক সাক্ষাতকারে নিজের অনুভূতিগুলো ব্যক্ত করেছেন শাহাদাত।

'আমি আমার নিষেধাজ্ঞা উঠিয়ে নেওয়ার জন্য বিসিবির নিকট আবেদন করেছি। বাকিটা কর্তৃপক্ষের হাতে। ঘরে আমার মা অসুস্থ, ক্যান্সারের উন্নত চিকিৎসা বহন করাটা এমতাবস্থায় আমার জন্য অনেক কষ্টদায়ক। হিমসিম খাচ্ছি প্রতিনিয়ত। এখন প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেটে ফেরাটা আমার জন্য অতীব আবশ্যক।'

অনুতাপের অনলে পোড়া রাজীবের আরো সংযোজন, 'ক্রিকেটই আমার ধ্যান-জ্ঞান। এটা বাদে অন্য কিছু বুঝি না। না জেনেবুঝে অন্যপেশায় যাওয়াটাও ঝুঁকির ব্যাপার। আমি আমার অতীতের কৃতকাজের জন্য মন থেকে অনুতপ্ত। শেষবারের মতন একটা সুযোগ চাইছি, সাথে কথা দিচ্ছি এরপরে আমার প্রতি বিসিবির কোনপ্রকারের অভিযোগ থাকলে আমি আমার এই পাপমুখ এ চত্বরে আর দেখাব না কোনদিন।'

এদিকে, শুধুমাত্র সাধারণ একজন বোলার হিসেবে একাডেমিতে রাজীব গিয়েছিলেন নেটে হাত ঘোরাতে। কিন্তু, বিপরীতে জুটেছে অবজ্ঞা আর অপমান। প্রধান মাঠকর্মী গামিনী ডি'সিলভা তাকে কড়া কথা শোনানোর পাশাপাশি একাডেমি ত্যাগ করতে বলেছেন। এতে বেশ মনকষ্ট পেয়েছেন নারায়ণগঞ্জের এই ক্রিকেটার।

ভাঙা কন্ঠে শাহাদাত বলেন, 'আমি জানতামই না আমার বল হাতে নেওয়ায় নিষিদ্ধ। বাকি আর ৮-১০ জন সাধারণ ক্রিকেটারের মতনই আমি নেটে নিজের বোলিং স্কিল ঝালিয়ে নিতে গেছিলাম। কিন্তু, গামিনীর চরম দূর্ব্যবহারে চোখের জল আর আটকে রাখতে পারিনি। যেখানে, উপস্থিত ক্রিকেটারদের কেউই এখনো বড় কোন আসরে খেলার সুযোগ পায়নি, সেখানে লর্ডসের অনার্স বোর্ডে নাম তোলা একজন ক্রিকেটারের সাথে এমন আচরণ স্বাভাবিকভাবেই কাম্য নয়। হ্যাঁ, মানছি এটাই আমার নিয়তি, কৃতকর্মের কুফল। এভাবে, একে সঙ্গে নিয়েই বাঁচতে হবে। এগোতে হবে সম্মুখে।'

২০০৫ সালে ইংল্যান্ড সফরে গায়ে চাপিয়েছিলেন গর্বের টেস্ট জার্সিটা। ২০০৬ সালে জিম্বাবুয়ের মাটিতে প্রথম টাইগার বোলার হিসেবে গড়েছিলেন হ্যাট্রিকের সুকীর্তি। ৩৮ টেস্ট, ৫১ ওয়ানডের পাশাপাশি ৬টি টি-টোয়েন্টিতে দেশকে প্রতিনিধিত্ব করা শাহাদাতের আন্তর্জাতিক উইকেটের সংখ্যা ১২৩টি। উল্লেখ্য, সহযোদ্ধার সাথে এহেন কুকর্ম করার আগে গৃহকর্মীকে নির্যাতনের অভিযোগেও পুলিশ তাকে সস্ত্রীক গ্রেফতার করেছিল।

পাঠকের মতামত:

খেলা এর সর্বশেষ খবর

খেলা - এর সব খবর



রে