ঢাকা, সোমবার, ২৫ অক্টোবর ২০২১, ১০ কার্তিক ১৪২৮

না খেলেই দেশে ফিরছে ক্রিকেটাররা

২০২১ মার্চ ১৪ ১০:৪৬:১৪
না খেলেই দেশে ফিরছে ক্রিকেটাররা

আয়ারল্যান্ড সরকারের নতুন কোভিড বিধিনিষেধের কারণে পরিবর্তন এসেছে বাংলাদেশ ইমার্জিং ও আয়ারল্যান্ড উলভসের মধ্যকার সিরিজে সূচিতে। সূচি অনুসারে দুইটি টি-টোয়েন্টি থাকলেও একটি কম খেলেই দেশের বিমানে চড়বে হ্যারি টেক্টরের দল।

সম্প্রতি হালনাগাদ হওয়া আইরিশ সরকারের কোভিড বিধিনিষেধ মতে করোনার রেড এলার্ট জারিকৃত দেশ হয়ে দেশে ফিরলে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে। ফলে সূচি অনুসারে সংযুক্ত আরব আমিরাতের রুট হয়ে আয়ারল্যান্ড গেলে দলটির ক্রিকেটারদের কোয়ারেন্টাইন বাধ্যতামূলক হয়ে যাবে। কারণ সংযুক্ত আরব আমিরাত বর্তমানে করোনার রেড এলার্ট জোনে আছে।

ফলে একটি চারদিনের ম্যাচ, পাঁচটি আনঅফিসিয়াল ওয়ানডে ও দুইটি টি-টোয়েন্টি খেলার কথা থাকলেও আইরিশরা ফিরবে একটি টি-টোয়েন্টি কম খেলেই। সেক্ষেত্রে আগেই বাংলাদেশ ছাড়া দলটি ১৬ মার্চ একমাত্র টি-টোয়েন্টি খেলে বাড়ি ফিরবে রুট পরিবর্তন করে। নতুন রুটে থাকছেনা সংযুক্ত আরব আমিরাতের কোন ট্রানজিট। এ প্রসঙ্গে বাংলাদেশ হাই পারফরম্যান্স (এইচপি) ইউনিটের ইনচার্জ জামাল উদ্দিন বাবু ‘ক্রিকেট৯৭‘ কে বলেন,

‘আসলে আয়ারল্যান্ড সরকার নতুন একটা নিয়ম করেছে। ফলে ১৮ তারিখের পরে বাংলাদেশ ছাড়লে তাদের ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে থাকবে। সে ক্ষেত্রে তাদের প্রধান নির্বাহী আমাদের প্রধান নির্বাহীর সাথে যোগাযোগ করে একটা টি-টোয়েন্টি কম খেলে দেশে ফেরার ব্যাপারে সাহায্য চেয়েছে।’‘এটাতো ছাড় দিতেই হয়। এমনিতে তারা এখানে এক মাসের মত বায়ো বাবলে আবার দেশে গিয়ে যদি ১৪ দিন কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হয় খুব কঠিন হয়ে যাবে। ফলে আমরা তাদের প্রস্তাবে রাজি হই, ১৬ তারিখ একমাত্র টি-টোয়েন্টি খেলেই তারা চলে যাবে।’

অন্যদিকে ক্রিকেট আয়ারল্যান্ডের পক্ষ থেকে দেওয়া এক বিবৃতিতে ক্রিকেট আয়ারল্যান্ড হাই পারফরম্যান্স (এইচপি) ইউনিটের পরিচালক রিচার্ড হোল্ডওর্থ বলেন,

‘দুর্ভাগ্যজনক হলেও আমাদের একটি টি-টোয়েন্টি ত্যাগ স্বীকার করতে হচ্ছে। আইরিশ কর্তৃপক্ষ পরামর্শ দিয়েছে ‘রেড লিস্ট’ দেশগুলোর মধ্য দিয়ে আয়ারল্যান্ডের কোন যাত্রী দেশে ফিরলে যেন হোটেলে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে থাকে। যেহেতু আমাদের রুটটি সংযুক্ত আরব আমিরাত হয়ে পড়ে, যার মানে দাঁড়ায় আমাদের স্কোয়াডকে নতুন কোয়ারেন্টাইন বিধিনিষেধের মধ্যে পড়তে হচ্ছে।’

‘ফলে আমাদের এখন নতুন কোন রুট হয়ে ফিরতে হবে। যেসব দেশ ‘রেড লিস্টে’ নেই সেসব হয়ে। আমরা সবসময় বলেছি আমাদের স্কোয়াডের মানসিক ও শারীরিক স্বাস্থ্য এবং কল্যাণ সবার আগে। তাই ১৪ দিনের হোটেল কোয়ারেন্টাইন এড়ানো জরুরি ছিল। বায়ো বাবলের কারণে এমনিতে ছেলেরা গত চার সপ্তাহ ধরে বন্দী। স্কোয়াডের কেউ কেউ সংযুক্ত আরব আমিরাতে আরও আগেই এই বায়ো বাবলের মধ্য দিয়ে গেছে।’

আগামীকাল মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে মাঠে গড়াবে সিরিজে পঞ্চম ও শেষ ওয়ানডে। এরপর একই ভেন্যুতে দুইটি টি-টোয়েন্টি অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা থাকলেও হবে একমাত্র টি-টোয়েন্টি ম্যাচটি।

পাঠকের মতামত:

খেলা এর সর্বশেষ খবর

খেলা - এর সব খবর



রে