ঢাকা, রবিবার, ১৬ মে ২০২১, ১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮

ক্রিকেটার নয় বরং যাদেরকে মিস করেন মুমিনুল হক

২০২১ এপ্রিল ২০ ১৬:৪৫:৩২
ক্রিকেটার নয় বরং যাদেরকে মিস করেন মুমিনুল হক

দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলতে শ্রীলঙ্কা সফরে আছে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দল। তবে দলের আশপাশে নেই কোনো বাংলাদেশি সংবাদমাধ্যম। এই সফরের আগে নিউজিল্যান্ডে তিনটি করে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি খেলে এসেছে বাংলাদেশ। সেখানেও ছিল না সংবাদমাধ্যমের উপস্থিতি।

মূলত করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে বিদেশি সংবাদমাধ্যম উপস্থিতির অনুমতি দিতে পারছে না স্বাগতিক দেশগুলো। যে কারণে নিজেদের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো পুরোপুরি দেশীয় সংবাদমাধমের উপস্থিতি ছাড়াই খেলতে হচ্ছে বাংলাদেশ দলকে। অবশ্য শুধু এ দুই বিদেশ সফরই নয়, ঘরের মাঠে সবশেষ ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজেও ছিল না মুখোমুখি সংবাদ সম্মেলনের ব্যবস্থা।

বিশেষ প্রয়োজনে অনলাইন প্ল্যাটফর্মের জুম কনফারেন্সের মাধ্যমে করা হয়েছে সংবাদ সম্মেলন। এরও আগে ঘরোয়া প্রেসিডেন্টস কাপ কিংবা বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টেও ছিল একই ব্যবস্থা। সবশেষ গতবছরের মার্চে ঘরের মাঠে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হতে হয়েছিল বাংলাদেশ দলকে।

সরাসরি সংবাদ সম্মেলনে এসে দিতে হয়েছে নানান প্রশ্নের উত্তর। এরপর থেকে প্রায় ১৩ মাস ধরে ভার্চুয়ালিই চলছে সংবাদ সম্মেলন। কিন্তু এই ব্যবস্থা মোটেও উপভোগ করেন না বাংলাদেশ টেস্ট দলের অধিনায়ক মুমিনুল হক। তার কাছে, সামনাসামনি সংবাদ সম্মেলনে বেশি উপভোগ্য। প্রায় প্রতি টেস্টের আগেই ভার্চুয়ালি সংবাদ সম্মেলন করলেও, সামনাসামনি কথা বলার সেই অনুভূতিটা পান না মুমিনুল।

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ শুরুর আগে ম্যাচ পূর্ববর্তী সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেছেন টাইগারদের টেস্ট অধিনায়ক। ২০১৯ সালে ভারত সফরের সময় তিনি বলেছিলেন, সংবাদমাধ্যম অযথা চাপ সৃষ্টি করে দলের ওপর। তাই প্রশ্ন করা হয়েছিল, এখন আশপাশে সংবাদমাধ্যম না থাকা দলের জন্য স্বস্তিদায়ক কি না?

উত্তরে মুমিনুল বলেছেন, না! আমি সবসময় সাংবাদিকদের মিস করি। আমি যখন থেকে বাংলাদেশ দলে খেলি, তখন থেকে সবসময় চেষ্টা করতাম যে, আমি প্রতিদিনই সংবাদ সম্মেলনে যাবো। তিনি আরও যোগ করেন, এটা (সংবাদ সম্মেলন) আমি সবসময়… মানে এটা আমার সবসময় ভালো লাগে।

সত্যি কথা বলতে, এভাবে এরকম (ভার্চুয়াল) সংবাদ সম্মেলনে আমার ঐ অনুভূতিটা আসে না। সামনাসামনি থাকলে এ জিনিসটা আরও বেশি উপভোগ করি। তাই স্বস্তি বলব না, (সাংবাদিকদের) মিস করি। এদিকে এখনও পর্যন্ত দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজের স্কোয়াড ঘোষণা করেনি বাংলাদেশ বা শ্রীলঙ্কা।

সফরকারীরা তাও ২১ জনের প্রাথমিক দল দিয়েছে। কিন্তু শ্রীলঙ্কার ব্যাপারে আনুষ্ঠানিকভাবে কিছুই জানানো হয়নি। তাহলে বাংলাদেশ দলের কি প্রতিপক্ষ সম্পর্কে ধারণা রয়েছে? মুমিনুলের জবাব, আপনারা হয়তো আনুষ্ঠানিকভাবে জানেন না, আমরা কাদের বিপক্ষে খেলব বা ওদের স্কোয়াডে কারা আছে।

তবে আমরা যারা এখানে আছি, তারা জানি কাদের বিপক্ষে খেলব। ওদের সবার কথাই আমাদের জানা আছে। এসময় বাংলাদেশ দলের মিডিয়া ম্যানেজার রাবিদ ইমাম জানিয়েছেন, আজ বাংলাদেশ সময় দুপুর আড়াইটা থেকে অনুশীলন করবে বাংলাদেশ দল। এই অনুশীলনের এক ফাঁকে কিংবা অনুশীলন শেষে ১৭ সদস্যের চূড়ান্ত স্কোয়াড ঘোষণা করা হবে।

পাঠকের মতামত:

খেলা এর সর্বশেষ খবর

খেলা - এর সব খবর



রে