ঢাকা, সোমবার, ১৭ মে ২০২১, ৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮

আবারও জাতীয় দলে সুযোগ পেয়ে সবাইকে অবাক করে যা বললেন ইমরুল

২০২১ মে ০২ ২০:৫৫:৫৩
আবারও জাতীয় দলে সুযোগ পেয়ে সবাইকে অবাক করে যা বললেন ইমরুল

বাংলাদেশের যদি অবহেলিত ক্রিকেটারের তালিকা করা হয় তাহলে প্রথমে নাম আসবে ইমরুলের। কখনো ভালে খেলে বাদ পড়েছেন, আবার কখনো বাদ পড়ার কারনটাও জানতে পারেননি তিনি নিজেই কেন বাদ পড়লেন।

দীর্ঘদিন ধরে জাতীয় দলের বাইরে এক সময়ের অন্যতম সফল ওপেনার ইমরুল কায়েস। বিশেষ করে ওয়ানডেতে। সেই সর্বশেষ ২০১৮ সালের ডিসেম্বরে ওয়ানডে খেলেছিলেন ইমরুল। এরপর আর এই ফরম্যাটের জার্সি ওঠেনি ইমরুলের গায়ে। টেস্টও খেলেছেন সর্বশেষ ২০১৯ সালের নভেম্বরে।

মাত্র কয়েকদিন আগে জাগো নিউজের সঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে ইমরুল জানিয়েছিলেন, তিনি জাতীয় দলে ফেরার জন্য উন্মুখ হয়ে আছেন। তবে তখন তিনি একটা আক্ষেপও জানিয়েছিলেন। বলেছিলেন, তারা যারা দল থেকে বাদ পড়েন, তাদের ফেরার পথটা মসৃণ থাকে না।

কিন্তু বেশিদিন অপেক্ষা করতে হয়নি। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে আসন্ন হোম সিরিজে (শুধু ওয়ানডে ফরম্যাটে) ইমরুল কায়েসকে ২৩ সদস্যের প্রাথমিক দলে ডাকা হয়েছে। আজ থেকে শুরু হয়েছে তাদের অনুশীলন।

যদিও দলের বড় একটি অংশ এখন সফররত অবস্থায় রয়েছে শ্রীলঙ্কায়। সাকিব-মোস্তাফিজ খেলছেন আইপিএল। যারা দেশে রয়েছেন, তাদের নিয়েই অনুশীলন ক্যাম্প শুরু হয়েছে। যেখানে ছিলেন ইমরুল কায়েসও। অনুশীলনের প্রথম মিডিয়ার মুখোমুখি হয়েছিলেন তিনি। সেখানে ইমরুল মন্তব্য করলেন, মাঝে মাঝে বাদ পড়াটা খেলোয়াড়দের জন্যই অনেক ভালো।

শুরুতেই দলে ফেরানোর জন্য নির্বাচকদের ধন্যবাদ জানালেন ইমরুল। তিনি বলেন, ‘ধন্যবাদ জানাই (নির্বাচকদের) যে আমি আবারও প্রাথমিক দলে ডাক পেয়েছি। এটা আমার জন্য অবশ্যই অনুপ্রেরণার।’

জাতীয় দলে ফেরার জন্য প্রাথমিক দলে থাকাটা অনেক বড় একটি ব্যপার বলে মন্তব্য করলেন তিনি। ইমরুল বলেন, ‘জাতীয় দলের বাইরে থাকলে, স্কোয়াডের বাইরে থাকলে জাতীয় দলে খেলার জন্য আসলে মানসিকভাবে প্রস্তুত থাকা যায় না।

আমি বলবো, এটা আমার জন্য অনেক বড় সুযোগ আবার নতুন করে চিন্তা ভাবনা করার। আর আমি নিজেকে ওভাবে প্রস্তুত করতে পারবো।’

নিজের ঘাটতিগুলো শোধরানোর জন্যও এটা একটা বড় সুযোগ বলে মনে করেন ইমরুল। তিনি বলেন, ‘আমার যে ঘাটতিগুলো ছিল এখন আমি এগুলো নিয়ে কাজ করতে পারবো। আমার মনে হয় যে এটা আমার জন্য অনেক বড় একটা সুযোগ আবারও জাতীয় দলকে প্রতিনিধিত্ব করার জন্য।’

জাতীয় দলের বাইরে থাকলে অনেক কিছু শেখা যায়। বোঝা যায়। এ কারণে, মাঝে মাঝে জাতীয় দলের বাইরে থাকা জরুরি বলে মন্তব্য করলেন এই ওপেনার। তিনি বলেন, ‘জাতীয় দলের বাইরে থাকলে যে জিনিসটা হয়, অনেক আপসেট থাকতে হয়।

জাতীয় দলের খেলা যখন দেখা হয় তখন ওই জায়গাটাকে অনেক মিস করা হয়। তারপরও আমি বলবো যে কিছু কিছু সময় বাদ পড়াটা প্লেয়ারের জন্য ভালো। অনেক কিছু শেখা যায় ওখান থেকে, নিজের ভুলগুলো নিয়ে, কি কি ভুল হয়েছে।’

তবে দলে সুযোগ না পেলেও ইমরুল মনে করেন তিনি জাতীয় দলের বাইরে চলে যাননি। ইমরুল বলেন, ‘আসলে কখনও ওভাবে মনে করিনি যে আমি জাতীয় দলের বাইরে চলে গেছি। সবসময়ই আমি ড্রেসিঙ্গরুমটা উপভোগ করি, এটার জন্য আমি যে অনুশীলনটা দরকার, কঠোর পরিশ্রমটা দরকার সেটা করে যাই সবসময়।

আমি কখনো ভাবি না যে জাতীয় দল থেকে বাদ পড়লে আমি বের হয়ে গেছি। আমি মনে করি পাশেই আছি, হয়তোবা পারফর্ম করতে পারলে আবার কামব্যাক করবো।’

পাঠকের মতামত:

খেলা এর সর্বশেষ খবর

খেলা - এর সব খবর



রে