ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৭ জুন ২০২১, ৩ আষাঢ় ১৪২৮

হার্ট অ্যাটাক করে ঢাকায় হাসপাতালে ভর্তি শ্রীলঙ্কার ক্রিকেটার ফার্নান্ডো, জেনেনিন সর্বশেষ অবস্থা

২০২১ মে ২৯ ১৫:৩৫:৪২
হার্ট অ্যাটাক করে ঢাকায় হাসপাতালে ভর্তি শ্রীলঙ্কার ক্রিকেটার ফার্নান্ডো, জেনেনিন সর্বশেষ অবস্থা

সদ্য শেষ হলো বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কার মধ্যকার আইসিসি সুপার লিগের তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজ। সাবেক লঙ্কান অলরাউন্ডার ও ঢাকার ক্লাব ক্রিকেটের অন্যতম পরিচিত মুখ টি এল ফার্নান্ডো হার্ট অ্যাটাক করেছেন। তিনি এখন রাজধানী ঢাকার গ্রিন লাইফ হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। শিগগিরই বাইপাস সার্জারি করাতে হবে ৫৮ বছর বয়সী ফার্নান্ডোর।

আশির দশকে ঢাকার ক্লাব ফুটবল যারা দেখতেন, তারা যে দলের ভক্তই হন না কেন- সবাই পাকির আলীকে এক নামে চিনতেন। এখনও পাকির আলী বাংলাদেশে পরিচিত। খেলা ছেড়ে কোচ হিসেবে আত্মপ্রকাশের পরও বাংলাদেশের সাথে তার সম্পর্ক রয়ে গেছে। বেশ কয়েকবার বাংলাদেশে এসেছেন কোচিং করাতে।

ঢাকার ক্লাব ফুটবলের দুই পরাশক্তি মোহামেডান আর শেখ জামালের মত জনপ্রিয় দলে কোচিংও করিয়েছেন। বর্তমানে পেশাদার লিগের দল পুলিশের হেড কোচের দায়িত্ব পালন করছেন পাকির আলী।

পাকির আলীর কাছাকাছি আরও একজন লঙ্কান ক্রীড়াবিদ একসময় বাংলাদেশে ছিলেন ব্যাপক জনপ্রিয়। তিনি টি এল ফার্নান্ডো। বর্তমান প্রজন্মর কাছে তেমন পরিচিত নন তিনি। তবে আশি-নব্বইয়ের দশকে যারা ঢাকা তথা বাংলাদেশের ক্রিকেটের খোঁজখবর রাখতেন, তাদের ফার্নান্ডোকে চেনাতে হবে না।

ঐ সময়ের নিয়মিত ক্রিকেট অনুরাগী মাত্রই টি এল ফার্নান্ডোকে এক নামে চেনেন। ফার্নান্ডো কত ভাল ও বড় ক্রিকেটার তাও জানেন। ঢাকাই ক্লাব ক্রিকেটে প্রায় একযুগের নিয়মিত পারফরমার ফার্নান্ডো। ক্যারিয়ারের বড় সময় আবাহনীর হয়ে খেলেছেন এ লঙ্কান ক্রিকেটার।

তিনি মূলত ছিলেন পেস বোলার। বল হাতে ইনিংসের উদ্বোধন করতেন। নতুন বলে ফার্নান্ডো ছিলেন সেই সময়ের ঢাকার ক্লাব ক্রিকেটে ‘ত্রাস’ সৃষ্টিকারী পেসার। তার বিপক্ষে খেলতে সবারই ঝক্কি পোহাতে হতো। পাশাপাশি ৭-৮ নম্বরে ব্যাটিংও করতেন।

দ্রুতগতির সঙ্গে সুইং আর বাউন্সারে প্রতিপক্ষ ব্যাটসম্যানকে ঘায়েল করার কাজে বিশেষ পারদর্শী এ লঙ্কান অলরাউন্ডার আশির দশকের মাঝামাঝি থেকে নব্বই দশকের শেষ অবধি প্রায় ঢাকা লিগের নিয়মিত পারফরমার ছিলেন। তার একার নৈপূন্যে আবাহনী অনেক ম্যাচ জিতেছে। ঢাকা লিগে খেলা বিদেশিদের মধ্যে অন্যতম সেরা পেস বোলিং অলরাউন্ডার টি এল ফার্নান্ডো শ্রীলঙ্কার জাতীয় দলের হয়ে একটি ওয়ানডেও খেলেছেন, সেটা ১৯৮৯ সালে।

সর্বশেষ খবর, এই নামি অলরাউন্ডার এখন গুরুতর অসুস্থ্ এবং সবচেয়ে বড় খবর হলো তিনি এখন বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকাতেই আছেন। তার হার্ট অ্যাটাক হয়েছে এবং বাইপাস সার্জারি লাগবে। গত মঙ্গলবার থেকে আজ দুপুর অবধি টি এল ফার্নান্ডো ছিলেন ইব্রাহিম কার্ডিয়াক হাসপাতালে। আজ দুপুরে তাকে গ্রিন লাইফ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে।

সেই ২০ বছর আগে ঢাকা লিগ খেলা ফার্নান্ডো ক্রিকেট ছেড়ে পাড়ি জমিয়েছিলেন অস্ট্রেলিয়ায়। আর এখন কি না তিনি অসুস্থ এবং ঢাকার হাসপাতালে ভর্তি! অনেকেই হয়ত মেলাতে পারছেন না। তাদের জন্য বলা, গত বছর তিনেক যাবত বাংলাদেশেই আছেন ফার্নান্ডো। এদেশেই ব্যবসা করেন।

জাতীয় দলের সাবেক তিন ক্রিকেটার হাবিবুল বাশার সুমন, সানোয়ার হোসেন ও জাভেদ ওমরন বেলিমের সঙ্গে ফার্নান্ডোর বেশ ভাল যোগাযোগ। বয়সে হাবিবুল বাশার, সানোয়ার ও জাভেদ ওমরের চেয়ে বড় হলেও ফার্নান্ডোর সঙ্গে তাদের সম্পর্কটা বন্ধুর মত। তারা তিনজনই ফার্নান্ডোর চিকিৎসার ব্যাপারে খোঁজখবর রাখছেন।

সানোয়ার নিজে তাকে বারডেম হাসপাতালে ভর্তি করিয়েছিলেন। সেখান থেকে আজ দুপুরে গ্রিন লাইফ হাসপাতালে ভর্তি করিয়েছেন। জাগো নিউজের সঙ্গে মুঠোফোন আলাপে সানোয়ার জানান, ‘আমি মঙ্গলবার ফার্নান্ডোর ফোন পেয়ে তার বাসায় যাই। সে আমাকে বলে আমি খুব অসুস্থ। পরে কথা বলে জানি তার বুকে ব্যথা। তাৎক্ষণিকভাবে ইব্রাহিম কার্ডিয়াক হাসপাতালে নিয়ে যাই।’

‘পরে এনজিওগ্রামে তার হার্টে বেশ কয়েকটি ব্লক ধরা পড়েছে। অতি অবশ্যই বাইপাস সার্জারি করতে হবে। তাই আমরা গ্রিন লাইফ হাসপাতালে নিয়ে এসেছি। যেহেতু তার ডায়াবেটিক্স সহ আরও আনুসাঙ্গিক সমস্যা আছে। তাই কদিন পর হয়ত তার বাইপাশ সার্জারী করতে হবে।’

একই সঙ্গে জাভেদ ওমর বেলিমও ফার্নান্ডোর চিকিৎসার ব্যাপারে ছুটোছুটি করছেন এবং তাকে হাসপাতালে আনা নেয়ার ব্যাপারে সানোয়ারের সঙ্গে কাজ করছেন। জাভেদও শনিবার কাছে ফার্নান্ডোর আরোগ্যর জন্য সবার দোয়া কামনা করেছেন।

পাঠকের মতামত:

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

খেলা এর সর্বশেষ খবর

খেলা - এর সব খবর



রে