ঢাকা, সোমবার, ২৬ জুলাই ২০২১, ১০ শ্রাবণ ১৪২৮

‘এ’ দল ও ছায়া দলের মধ্যে পার্থক্য দেখিয়ে দিলো বিসিবি

২০২১ জুন ১৬ ২১:৪৮:৪২
‘এ’ দল ও ছায়া দলের মধ্যে পার্থক্য দেখিয়ে দিলো বিসিবি

গতকাল বার্ষিক বোর্ড আয়োজন করে বিসিবি। যেখানে নান ধরনের আলোচনা এবং সিদ্ধান্ত নেয়া হয় কি কি করা হবে। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সর্বশেষ বোর্ড সভায় অনুমোদন দেওয়া হয়েছে ছায়া দল ‘বাংলাদেশ টাইগার’ এর। বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন ছায়া দলের ব্যাপারে ঘোষণা করার পর থেকেই প্রশ্ন, ‘এ’ দলের সাথে মূলত কী পার্থক্য থাকছে দলটির।

জাতীয় দলের আশেপাশে থাকা খেলোয়াড়দের নিয়ে গড়া হয় ‘এ’ দল। এখানে থাকেন বয়সভিত্তিক পর্যায়ে ভালো করা ক্রিকেটাররাও। ছায়া দলটাও যেন জাতীয় দলের ‘গ্রিন রুম’। তবে ‘এ’ দলের সাথে এই দলের পার্থক্য- এখানে খেলোয়াড়দের নিয়ে কার্যক্রম চলবে পুরো বছর জুড়েই।

সাধারণত কোনো দ্বিপাক্ষিক সিরিজের আগে ‘এ’ দল নিয়ে কাজ করা হয়। এতে ক্রিকেটাররা বেশি সময় কাজ করার সুযোগ পান না। ক্রিকেট কমিটি অব ঢাকা মেট্রোপলিসের (সিসিডিএম) সভাপতি কাজী ইনাম আহমেদ জানিয়েছেন, ছায়া দলের কার্যক্রম চালু থাকবে ১২ মাসই। তিনি ছাড়াও এই প্রোগ্রাম গোছানোর দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে আরেক বোর্ড পরিচালক ও গেম ডেভেলপমেন্ট কমিটির চেয়ারম্যান খালেদ মাহমুদ সুজনকে।

ইনাম জানান, “এই প্রোগ্রাম কিন্তু সারা বছর চলবে। ‘এ’ দল সাধারণত কোনো সিরিজ বা সফরের আগে কাজ করে। সবসময় সিরিজ আয়োজনও সহজ হয় না, বড় চ্যালেঞ্জ থাকে। করোনার কারণে এখন সব অনেক কঠিন হয়ে গেছে।

কিন্তু এটা ইমরুল, সাব্বির, বিজয়, নাসির, শফিউলদের মত খেলোয়াড়দের জায়গা। তারা কিন্তু এখন অনূর্ধ্ব-১৯ বা এইচপি দলে নেই। তাদের খেয়াল রাখার জন্যই এই বাংলাদেশ টাইগার।”

ছায়া দল গোছানোর কাজটা ত্বরিত গতিতেই হচ্ছে। চলমান ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ শেষেই এর কার্যক্রম শুরু হবে বলে জানান ইনাম। তিনি বলেন, “আমরা ডিপিএল শেষ হওয়ার পরপরই এই প্রোগ্রাম শুরু করতে চাই।”

পাঠকের মতামত:

খেলা এর সর্বশেষ খবর

খেলা - এর সব খবর



রে