ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৫ আগস্ট ২০২১, ২১ শ্রাবণ ১৪২৮

সহজ ম্যাচ কঠিন করে জিতলো বাংলাদেশ, অধিনায়ক তামিম প্রশংসাই ভাসালেন যাদেরকে

২০২১ জুলাই ১৮ ২২:২০:২৯
সহজ ম্যাচ কঠিন করে জিতলো বাংলাদেশ, অধিনায়ক তামিম প্রশংসাই ভাসালেন যাদেরকে

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে আইসিসি সুপার লিগের তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচে বড় জয় পেলেও দ্বিতীয় ম্যাচে জয়ের জন্য রীতিমত ঘাম ঝরাতে হয়েছে বাংলাদেশ দলকে। একের পর উইকেট বিলিয়ে দিয়ে আসার পরও সাকিব আল হাসান একাই টেনে নিয়ে যান দলকে। তার দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে ভর করেই এক ম্যাচ হাতে রেখে সিরিজ জিতে নিয়েছে টাইগাররা।

এই জয়ের পর তামিম ইকবাল বোলারদের প্রতি সন্তুষ্ট থাকলেও ব্যাটিং বিভাগে ঘাটতির কথা স্বীকার করে নিয়েছেন। সেই সাথে ম্যাচজয়ী ইনিংস খেলা সাকিব ও সাইফুদ্দিনের প্রশংসাও করেন তামিম।

টাইগারদের ওয়ানডে অধিনায়ক বলেন, ‘’জিম্বাবুয়েকে ২৪০ রানের মধ্যে আটকে রেখে বোলাররা দুর্দান্ত কাজ করেছে। আমাদের অবশ্যই পরিকল্পনা ছিল। ব্যাটিং হিসেবে আমরা আরও ভালো কিছু করতে পারতাম। সাকিব ও সাইফুদ্দিন যা করেছে তা সত্যিই প্রশংসা করার মত।‘’

এর আগে প্রথমে ব্যাটিং করতে নেমে শুরুটা খুব বেশি সুবিধা করতে পারেনি জিম্বাবুয়ে। শুরুতেই ওপেনার তিনাশু কামুনুখামেকে সাজঘরে ফেরত পাঠান তাসকিন আহমেদ। দলীয় ৩৩ রানে মারুমানিকে মেহেদি হাসান মিরাজ নিজের শিকারে পরিনত করলে বড় জুটি গড়ার ইঙ্গিত দিয়েছিলো রাগিস চাকাবা ও ব্রেন্ডন টেইলর।

চাকাবা ব্যক্তিগত ২৬ রানে সাকিবের শিকারে পরিনত হলে ৪৬ রান করা শরিফুল ইসলামের বলে টেইলর হিট উইকেটের শিকার হয়ে মাঠ ছাড়েন। শেষের দিকে মাদাভেরার ৫৬ ও সিকান্দার রাজার ৩০ রানে ভর করে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ২৪০ রান করে তারা। বল হাতে শরিফুল ইসলাম একাই নিয়েছেন ৪টি উইকেট।

জবাবে খেলতে নেমে শুরুটা ভালো করেছিল বাংলাদেশ। ওপেনিং জুটিতে ৩৯ রান যোগ করার পর ৩৪ বলে ২০ রান করে সাজঘরে ফিরেন তামিম। এরপর অবশ্য ধারাবাহিক বিরতিতে উইকেট বিলাতে থাকে বাংলাদেশ।

৭৫ রানে ৪ উইকেট হারানো বাংলাদেশ দলের হাল ঠিক রেখেছিলেন সাকিব আল হাসান। মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের সাথে মিলে ৫৫ রানের জুটি গড়ার পর যখন রিয়াদও ২৬ রান করে থামেন তখন একাই খাদের কিনারা থেকে দলকে টেনে তোলেন সাকিব। শেষের দিকে সাইফুদ্দিনকে সাথে নিয়ে লড়াই চালিয়ে যান।

শেষ ২ ওভারে জয়ের জন্য ১২ রান প্রয়োজন হলে ৪৯তম ওভারে আসে ৯ রান। শেষ ওভারের প্রথম বলেই দলকে ৩ উইকেটের জয় এনে দেন সাকিব। সাকিব অপরাজিত ছিলেন ৯৬ রানে ও সাইফুদ্দিন অপরাজিত ছিলেন ২৮ রানে।

পাঠকের মতামত:

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

খেলা এর সর্বশেষ খবর

খেলা - এর সব খবর



রে