ঢাকা, বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৭ আশ্বিন ১৪২৮

হাইভোল্টেজ ম্যাচে আজ রাতে শক্তিশালী প্রতিপক্ষে বিপক্ষে মাঠে নামছে বার্সেলোনা

২০২১ সেপ্টেম্বর ১৪ ১০:১৪:৫৬
হাইভোল্টেজ ম্যাচে আজ রাতে শক্তিশালী প্রতিপক্ষে বিপক্ষে মাঠে নামছে বার্সেলোনা

আজ রাতে থেকে শুরু হতে যাচ্ছে ইউরোপিয়ান ক্লাব ফুটবলের শ্রেষ্ঠত্বের লড়াই উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগ। টুর্নামেন্টের প্রথম দিনই রয়েছে হাইভোল্টেজ ম্যাচ। যেখানে মুখোমুখি হবে স্পেন ও জার্মানির দুই জায়ান্ট ক্লাব বার্সেলোনা ও বায়ার্ন মিউনিখ। ম্যাচটি বার্সেলোনার জন্য প্রতিশোধের ম্যাচই বলা চলে।

ঠিক ১৩ মাস আগে, গত বছরের ১৪ আগস্ট তারিখে চ্যাম্পিয়নস লিগের কোয়ার্টার ফাইনাল ম্যাচে বার্সেলোনাকে ৮-২ গোলের বড় পরাজয়ের তিক্ত স্বাদ উপহার দিয়েছিল বায়ার্ন। সেই ম্যাচের পর আর মুখোমুখি হয়নি এ দুই দল। এবার চ্যাম্পিয়নস লিগের গ্রুপপর্বেই অন্তত দুইবার একে অপরের বিপক্ষে খেলবে তারা।

যার প্রথমটি আবার বার্সেলোনার ঘরের মাঠেই। মঙ্গলবার বাংলাদেশ সময় দিনগত রাত ১টায় ন্যু ক্যাম্পে বায়ার্নকে স্বাগত জানাবে বার্সেলোনা। এ ম্যাচটি জিতে সেই ৮-২’র ক্ষততে প্রলেপ দেয়ার চেষ্টাই থাকবে কাতালানদের। বছরখানেক আগে সেই পরাজয়ের দিন দলে ছিলেন বিশ্বের অন্যতম সেরা তারকা লিওনেল মেসি। এবার তাকেও পাচ্ছে না রোনাল্ড কোম্যানের দল।

শুধু মেসিকেই নয়, গত মৌসুমের তুলনায় প্রায় নতুন এক দল নিয়েই এবার বায়ার্নের মুখোমুখি স্প্যানিশ ক্লাবটি। অর্থনৈতিক জটিলতার কারণে অনেক খেলোয়াড়কে ছেড়ে দিতে হয়েছে বার্সেলোনার। অনেক খেলোয়াড়কে আবার ফ্রি ট্রান্সফারে দলে ভেড়াতে পেরেছে তারা। মেসির পাশাপাশি অ্যান্তনিও গ্রিজম্যানকেও ছেড়ে দিয়েছে ক্লাবটি।

মজার বিষয় হলো, সেই ৮-২ পরাজয়ের দিন বায়ার্ন মিউনিখে লোনে ছিলেন বার্সেলোনার ব্রাজিলিয়ান তারকা ফিলিপ কৌতিনহো। বায়ার্নের হয়ে দুইটি গোলও করেছিলেন তিনি। সেই কৌতিনহো এবার মাঠে নামবেন বায়ার্নের বিপক্ষে বার্সেলোনার হয়ে সেই ম্যাচের প্রতিশোধ নেয়ার লক্ষ্যে।

ম্যাচটিতে নিশ্চিতভাবেই ফেবারিট থাকবে বায়ার্ন। একে তো তারা চ্যাম্পিয়নস লিগে বর্তমান শিরোপাধারী দল, তার ওপর বার্সার বিপক্ষে অতীত পরিসংখ্যানও কথা বলছে জার্মান ক্লাবটির পক্ষে। এখনও পর্যন্ত মেজর উয়েফা টুর্নামেন্টগুলোতে ১১ ম্যাচ খেলেছে এ দুই। যেখানে বায়ার্নের জয় ৭ ম্যাচে আর বার্সেলোনা জিতেছে সবে ২ ম্যাচ।

১৯৯৮-৯৯ মৌসুমের পর আর কখনও গ্রুপপর্বে বায়ার্নের মুখোমুখি হয়নি বার্সেলোনা। সেবার গ্রুপের দুই ম্যাচেই বার্সাকে হারায় বায়ার্ন এবং তৃতীয় হয়ে গ্রুপপর্ব থেকেই বিদায় নিয়েছিল বার্সেলোনা। এরপর অবশ্য ২০০০-০১ মৌসুমেও গ্রুপপর্ব পেরুতে পারেনি কাতালান ক্লাবটি। এর আগে ১৯৯৭-৯৮ মৌসুমেও ছিল একই পরিণতি।

তবে এবার বায়ার্নের বিপক্ষে নামার আগে তাদের জন্য রয়েছে আশার কথাও। সবশেষ ১৯৯৭-৯৮ মৌসুমে চ্যাম্পিয়নস লিগের প্রথম ম্যাচ হেরেছিল বার্সেলোনা। এরপর খেলা ২২টি আসরে প্রথম ম্যাচে হারতে হয়নি তাদের। যেখানে ১৭টি জয়ের পাশাপাশি ড্র হয়েছিল বাকি পাঁচ ম্যাচ।

কম যায় না অবশ্য বায়ার্নও। চ্যাম্পিয়নস লিগে সবশেষ ১৮টি অ্যাওয়ে ম্যাচে হারেনি জার্মান জায়ান্টরা। এই ১৮ ম্যাচের মধ্যে ১৪টিতেই জিতেছে তারা, ড্র হয়েছে বাকি ৪ ম্যাচ। ফলে মঙ্গলবার রাতের ম্যাচে বার্সেলোনার কাজ যে মোটেও সহজ হবে না, তা বলেই দেয়া যায়। দেখার বিষয়, প্রতিশোধের মিশনে কীভাবে দলকে চালান বার্সা কোচ রোনাল্ড কোম্যান।

পাঠকের মতামত:

খেলা এর সর্বশেষ খবর

খেলা - এর সব খবর



রে