ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২ ডিসেম্বর ২০২১, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

আর কতবার ভুল করলে শোধরানোর সময় হবে বাংলাদেশ দলের

২০২১ অক্টোবর ২৪ ২২:৪৮:০৯
আর কতবার ভুল করলে শোধরানোর সময় হবে বাংলাদেশ দলের

হারলেই যে লাইনটা বাংলাদেশ দলের অধিনায়কেরা বলেন সেটা এতদিনে সমর্থকদের মুখস্থ হয়ে যাবার কথা। প্রত্যেকটা হার থেকেই শিক্ষা নেয়া কিংবা শোধরানর কথা বলেও কতটা শোধরাতে পারে সেটা সময়ই বলে দেয়।

এবারের বিশ্বকাপের শুরুতেই স্কটল্যান্ডের কাছে হেরে ধাক্কা খায় বাংলাদেশ দল। এরপর ওমান ও পাপুয়া নিউগিনিকে হারিয়ে অনেক সমীকরণ শেষে মূল পর্বে জায়গা করে নেয় বাংলাদেশ।

মূল পর্বের প্রথম ম্যাচে টাইগাররা মুখোমুখি হয়েছিল বাছাই পর্ব পার করে আশা শ্রীলঙ্কার। দিনের প্রথম ম্যাচে টস জিতে টাইগার অধিনায়ক সিদ্ধান্ত নেন ব্যাট করার।

ছোট মাঠে বাংলাদেশ দল সংগ্রহ করেছিল ৪ উইকেটে ১৭১ রান। বড় সংগ্রহের পেছনে দারুণ ভূমিকা রাখেন নাঈম শেখ (৬২) ও লম্বা সময় ধরে অফ-ফর্মে থাকা মুশফিকুর রহিম (৫৭)।

লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে লঙ্কানরা জিতে যায় ১৮.৫ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে। যে দুই ব্যাটসম্যানের ব্যাটে ভর করে লঙ্কানরা জিতেছে তাদের দুইজনকেই ফেরানো গেলে ম্যাচটার ফলাফল হতে পারত বাংলাদেশের পক্ষে।

১৪ রানে জীবন পেয়ে ভানুকা রাজাপাকসা খেলেন ৩১ বলে ৫৩ রানের ইনিংস। চারিথ আসালাঙ্কা ক্যাচ দিয়ে রক্ষা পান ৬৩ রানে। তিনি ম্যাচ শেষ করে আসেন ৪৯ বলে ৮০ রান করে।

বলা যায়, লিটন দাসের দুটি ক্যাচ মিসের কারণেই ম্যাচটা হারতে হয়েছে বাংলাদেশকে। লিটনের ক্যাচ ছাড়া যে হারের বড় কারণ সেটা নাম প্রকাশ না করেও স্বীকার করেছেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।

“আমরা দুটি বড় সুযোগ হারিয়েছি। এ ম্যাচের ভুলগুলো পরের ম্যাচে শুধরে নেব। এ ম্যাচের ইতিবাচক দিক হলো, আমাদের ব্যাটিংয়ের আত্মবিশ্বাস বাড়বে। আমরা এখন পরের ম্যাচের দিকে তাকিয়ে আছি।”

ম্যাচ শেষে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ বলেছেন ১৭১ রান জেতার মতোই ছিল। স্বীকার করেন, ম্যাচের দশ ওভার পর পালটে যায় ম্যাচের চিত্র।

“আমার মনে হয়, ১৭১ রান নিয়ে জিততে পারতাম আমরা। লিটন দাস আর মোহাম্মদ নাঈম দারুণ একটা শুরু এনে দিয়েছিল। ১০ ওভার পর্যন্ত আমরা পুরোপুরি ম্যাচে ছিলাম। মুশফিক দারুণ একটা ইনিংস খেলেছে। কিন্তু ১০ ওভারের পর থেকেই পরিস্থিতি পাল্টে যেতে থাকে। আমরা নিয়ন্ত্রণ হারাই।”

পাঠকের মতামত:

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

খেলা এর সর্বশেষ খবর

খেলা - এর সব খবর



রে