ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৫ জানুয়ারি ২০২২, ১২ মাঘ ১৪২৮

রেকর্ড গড়ে সবার শীর্ষে তাইজুল

২০২১ নভেম্বর ২৮ ১৫:২৭:২৪
রেকর্ড গড়ে সবার শীর্ষে তাইজুল

চট্টগ্রাম টেস্টে পাকিস্তানের বিপক্ষে প্রথম টেস্টে ৬ উইকেট তুলে নিয়েছেন স্পিনার তাইজুল ইসলাম। তার ঘুর্ণিতে ২৫৭ রান করে ৯ টি উইকেট হারিয়েছে পাকিস্তান।

আর পাঁচ উইকেট তুলে নেয়ার মাধ্যমে মাধ্যমে পাকিস্তানের বিপক্ষে বাংলাদেশের হয়ে সর্বোচ্চ উইকেটশিকারী বোলার হয়েছেন তাইজুল। এতোদিন পাকিস্তানের বিপক্ষে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ উইকেট শিকারী বোলার ছিলেন মোহাম্মদ রফিক।

তিনি ম্যান ইন গ্রিনদের বিপক্ষে ৩টি ম্যাচ খেলে ১৭টি উইকেট নিয়েছিলেন। তাইজুল এখন রফিকের রেকর্ডে দখল করলেন। তিনি পাকিস্তানের বিপক্ষে খেলেছেন ৪টি ম্যাচ। আর তাতেই গড়লেন সর্বোচ্চ উইকেটের রেকর্ড।

নিজের ষষ্ঠ শিকার হিসেবে নুমান আলীকে আউট করেন তিনি। পঞ্চম শিকার হিসেবে হাসান আলীকে ১২ রানে স্ট্যাম্পিং আউট করেন তাইজুল। তার চতুর্থ শিকার ছিল সেঞ্চুরি করা আবিদ আলী। তিনি করেন ১৩৩ রান।

এর আগে দিনের একদম শুরুতেই তাইজুল ইসলাম পর পর দুই বলে অভিষিক্ত আব্দুল্লাহ শফিককে ৫২ রানে ও আজহার আলীকে ০ রানে ফিরিয়েছেন। গতকাল শফিক ৫২ রানেই অপরাজিত ছিলেন। আজ কোন রান না করার আগেই এলবিডব্লিউে ফাঁদে পরেন। আজহার আলীও ঠিক একইভাবে পরের বলে আউট হয়ে যান।

অধিনায়ক বাবর আজম ১০ রান করে দলীয় ১৭৯ রানের সময় মেহেদি হাসান মিরাজের বলে বোল্ড আউট হন। এতে করে হঠাৎ করেই পাকিস্তানকে বেকায়দায় ফেলে দিতে সমর্থ হয় টাইগাররা। এরপর দলীয় ১৮২ রানের সময় ফাওয়াদ আলম, রেজওয়ানদের ফিরিয়ে ঘুরে দাড়ায় টাইগাররা।পাকিস্তানের বিপক্ষে চট্টগ্রাম টেস্টে পাকিস্তানের বিপক্ষে প্রথম টেস্টে পাঁচ উইকেট তুলে নিয়েছেন স্পিনার তাইজুল ইসলাম। তার ঘুর্ণিতে ২২৯ রান করে ৭টি উইকেট হারিয়েছে পাকিস্তান।

আর পাঁচ উইকেট তুলে নেয়ার মাধ্যমে মাধ্যমে পাকিস্তানের বিপক্ষে বাংলাদেশের হয়ে যৌথভাবে সর্বোচ্চ উইকেটশিকারী বোলার হয়েছেন তাইজুল। এতোদিন পাকিস্তানের বিপক্ষে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ উইকেট শিকারী বোলার ছিলেন মোহাম্মদ রফিক। তিনি ম্যান ইন গ্রিনদের বিপক্ষে ৩টি ম্যাচ খেলে ১৭টি উইকেট নিয়েছিলেন। তাইজুল এখন রফিকের রেকর্ডে ভাগ বসালেন। তিনি পাকিস্তানের বিপক্ষে খেলেছেন ৪টি ম্যাচ। আরেকটি উইকেট পেলে রফিককে ছাড়িয়ে যাবেন তিনি।

নিজেন পঞ্চম শিকার হিসেবে হাসান আলীকে ১২ রানে স্ট্যাম্পিং আউট করেন তাইজুল। তার চতুর্থ শিকার ছিল সেঞ্চুরি করা আবিদ আলী। তিনি করেন ১৩৩ রান।

এর আগে দিনের একদম শুরুতেই তাইজুল ইসলাম পর পর দুই বলে অভিষিক্ত আব্দুল্লাহ শফিককে ৫২ রানে ও আজহার আলীকে ০ রানে ফিরিয়েছেন। গতকাল শফিক ৫২ রানেই অপরাজিত ছিলেন। আজ কোন রান না করার আগেই এলবিডব্লিউে ফাঁদে পরেন। আজহার আলীও ঠিক একইভাবে পরের বলে আউট হয়ে যান।

অধিনায়ক বাবর আজম ১০ রান করে দলীয় ১৭৯ রানের সময় মেহেদি হাসান মিরাজের বলে বোল্ড আউট হন। এতে করে হঠাৎ করেই পাকিস্তানকে বেকায়দায় ফেলে দিতে সমর্থ হয় টাইগাররা। এরপর দলীয় ১৮২ রানের সময় ফাওয়াদ আলম তাইজুলের বলে ৮ রান করে আউট করেন।

পাঠকের মতামত:

খেলা এর সর্বশেষ খবর

খেলা - এর সব খবর



রে