ঢাকা, সোমবার, ২৪ জানুয়ারি ২০২২, ১১ মাঘ ১৪২৮

সব রাগ ক্ষোভ দিয়ে ব্যালন ডি’অর আয়োজকদের ধুয়ে দিলেন রোনালদো

২০২১ নভেম্বর ৩০ ১৪:২৩:৩৯
সব রাগ ক্ষোভ দিয়ে ব্যালন ডি’অর আয়োজকদের ধুয়ে দিলেন রোনালদো

ব্যালন ডি’অর পুরস্কারের আয়োজক ফ্রান্স ফুটবল ম্যাগাজিনের সম্পাদক প্যাসকেল ফেরের উপর বেজায় চটেছেন ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো। ফেরে তাকে নিয়ে ‘মিথ্যাচার করেছেন’ বলে মন্তব্য করেছেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড তারকার।

সোমবার রাতে সপ্তমবারের মতো ব্যালন ডি’অর পুরস্কার জিতে নিয়েছেন লিওনেল মেসি। রোনালদোর সঙ্গে তার শ্রেষ্ঠত্ব নিয়ে সব সময়ই বিভক্ত থেকেছে ফুটবল ভক্তরা। রোনালদো অবশ্য মেসির হাতে পুরস্কার উঠেছে বলে চটেছেন তা নয়। বরং মেসির হাতে পুরস্কার ওঠার আগেই ইনস্টাগ্রাম পোস্টে নিজের বক্তব্য তুলে ধরেছেন পর্তুগিজ সুপারস্টার।

ব্যালন ডি’অর ঘোষণা দেওয়ার ঘণ্টা দুই আগে সামাজিক মাধ্যমে এক বিবৃতি দিয়ে প্যাসকেল ফেরেকে রীতিমতো তাকে ধুয়ে দিয়েছেন রোনালদো, ‘আজকের এই লেখায় আমি ব্যাখ্যা করবো গত সপ্তাহে দেওয়া প্যাসকেল ফেরের বক্তব্যের। যেখানে তিনি বলেছেন, ক্যারিয়ার শেষ করার আগে আমার একমাত্র লক্ষ্য হলো লিওনেল মেসির চেয়ে বেশি ব্যালন ডি’অর জেতা। প্যাসকেল ফেরে মিথ্যা বলেছেন, সে নিজের প্রচারণা ও যে প্রকাশনার জন্য সে কাজ করে তার প্রচারণার জন্য র জন্য আমার নাম ব্যবহার করেছেন।’

গতবারের মতো এবারও ব্যালন ডি’অর অনুষ্ঠানে যোগ দেননি রোনালদো। এর কারণ হিসেবে কোয়ারেন্টিনের কথা বলেছিলেন প্যাসকেল। এটাও মিথ্যা বলে দাবি করেন রোনালদো, ‘এই ধরনের মর্যাদাপূর্ণ পুরস্কার দেওয়ার পেছনে যার অবদান রয়েছে, তার কাছ থেকে এমন মিথ্যাচার অগ্রহণযোগ্য। ফ্রান্স ফুটবল এবং ব্যালন ডি’অরকে যে সবসময় সম্মান করেছে, তার প্রতি পুরোপুরি অসম্মান। এমনকি তিনি আজকেও (সোমবার) মিথ্যা বলেছেন। গালাতে আমার অনুপস্থিতির পেছনে কোয়ারেন্টিনের কথা বলেছেন, যার কোনো অস্তিত্বই নেই।’

ক্যারিয়ারে কখনোই কারো বিরুদ্ধে ব্যক্তিগত লড়াইয়ে নামেননি বলে জানান এ পর্তুগিজ তারকা, ‘আমি সবসময় যারা বিজয়ী হয় তাদের অভিনন্দন জানাতে চাই। এবং এখনও করি কারণ আমি কারো বিরুদ্ধে নই। ক্যারিয়ারের শুরু থেকেই স্পোর্টসম্যানশিপ ও ফেয়ার প্লে’র মধ্য দিয়েই বেড়ে উঠেছি আমি। আমি সবসময় নিজের জন্য এবং নিজের ক্লাবের জন্য জিতি। আমি আমার জন্য জিতি, আমাকে যারা ভালোবাসে তাদের জন্য জিতি। আমি কারও বিরুদ্ধে জিতি না।’

ফুটবল ইতিহাসে স্বর্ণাক্ষরে নিজের নাম লিখে যাওয়াই তার বড় লক্ষ্য বলে জানান তিনি, ‘আমার ক্যারিয়ারের সবচেয়ে বড় লক্ষ্য হলো যে ক্লাবের হয়ে আমি খেলি এবং আমার দেশের জাতীয় দলের হয়ে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক শিরোপা জেতা। আমার সবচেয়ে বড় লক্ষ্য হলো যারা পেশাদার ফুটবলার হতে চায় তাদের জন্য ভালো একটা উদাহরণ তৈরি করে যাওয়া। আমার সবচেয়ে বড় লক্ষ্য হলো ফুটবল ইতিহাসে স্বর্ণাক্ষরে নিজের নাম লিখে যাওয়া।’

পাঠকের মতামত:

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

খেলা এর সর্বশেষ খবর

খেলা - এর সব খবর



রে