ঢাকা, রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯

ফলাফল: দেখেনিন এক নজরে, ষষ্ঠ ধাপে ইউপি নির্বাচনে বিজয়ী হলেন যারা

২০২২ ফেব্রুয়ারি ০১ ১১:১১:০০
ফলাফল: দেখেনিন এক নজরে, ষষ্ঠ ধাপে ইউপি নির্বাচনে বিজয়ী হলেন যারা

বিচ্ছিন্ন ঘটনার মধ্য দিয়ে ষষ্ঠ ধাপে ২২ জেলার ৪২ উপজেলার ২১৮টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সোমবার (৩১ জানুয়ারি) সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত চলে ভোটগ্রহণ। এর মধ্যে ২১৬ ইউপিতে ইভিএমে এবং মাত্র দুটি ইউনিয়নে ব্যালটের মাধ্যমে ভোটগ্রহণ হয়। আরটিভি নিউজের পাঠানো প্রতিনিধিদের প্রতিবেদন।

হবিগঞ্জ: ষষ্ঠ ধাপের ইউপি নির্বাচনে হবিগঞ্জে আওয়ামী লীগের ভরাডুবি হয়েছে। ৮টি ইউনিয়নের মধ্যে ৬টিতেই পরাজিত হয়েছেন আওয়ামী লীগ প্রার্থীরা। ১টি বিএনপি, ১টি জাতীয় পার্টি ও আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী প্রার্থী জয়ী হয়েছেন ৪টিতে।

নির্বাচন সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, শায়েস্তাগঞ্জ সদর ইউপিতে আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী বুলবুল খান, বাহুবল সদরে আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী আজমল হোসেন খান, মিরপুরে বিএনপি নেতা মো. শামীম, লামাতাশি জাতীয় পার্টি প্রার্থী উস্তার মিয়া তালুকদার, পুটিজুরি ইউপিতে আওয়ামী লীগ দলীয় আলহাজ মো. মুদ্দত আলী, স্নানঘাটে আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী মো. তোফাজ্জল হক রাহিন, ভাদেশ্বরে আওয়ামী লীগ দলীয় কামরুজ্জামান বশির ও সাতকাপন ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী আব্দুর রাজ্জাক জয় পেয়েছেন।

জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোহাম্মদ সাদিকুল ইসলাম আরটিভি নিউজকে জানিয়েছেন, নির্বাচন সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ হয়েছে। কোথাও কোনো অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া : ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা ও নবীনগর উপজেলার ১৪ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের বেসরকারিভাবে ফলাফল প্রকাশ করা হয়েছে।

সোমবার (৩১ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় জেলা নির্বাচন অফিস জানিয়েছেন, ফলাফল অনুযায়ী নবীনগর উপজেলার ৭টি ইউনিয়ন নির্বাচনের ৪টিতে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী, ১টিতে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী ও দুটিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী নির্বাচিত হয়েছেন।

নির্বাচিত আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীরা হলেন, বিটঘর ইউপিতে মেহেদী জাফর (নৌকা), কাইতলা দক্ষিণ ইউপিতে মো. শওকত আলী (নৌকা), বড়াইল ইউপিতে মো. জাকির হোসেন (নৌকা) ও বিদ্যাকুট ইউপিতে জাকারুল হক (নৌকা)।

নির্বাচিত স্বতন্ত্র প্রার্থীরা হলেন, কৃষ্ণনগর ইউপিতে আমজাদ হোসেন (চশমা) ও শিবপুর ইউপিতে এম.আর মজিব (আনারস) এবং নাটঘর ইউপিতে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী আক্তারুজ্জামান (মোটরসাইকেল)।

এদিকে কসবা উপজেলার ৭টি ইউনিয়নে দলীয় প্রতীক ছাড়া নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। নির্বাচনে বিজয়ীরা হলেন, মেহারী ইউপিতে মোশারফ হোসেন (টেবিলফ্যান), বাদৈর ইউপিতে শিপন আহম্মদ ভূইয়া (চশমা), গোপীনাথপুর ইউপিতে মো. মিজানুর রহমান (টেবিল ফ্যান), বিনাউটি ইউপিতে বেদন খান (ঘোড়া), কায়েমপুর ইউপিতে ইকতিয়ার আলম রনি (আনারস), বায়েক ইউপিতে মো. বিল্লাল হোসেন (অটোরিকশা) ও কসবা পশ্চিম ইউপিতে মো. মানিক মিয়া (অটোরিকশা)।

এর আগে সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪ টা পর্যন্ত দুই উপজেলার ১৪ ইউপিতে ইভিএম-এ শান্তিপূর্ণ ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। তবে ইভিএম-এ ভোটগ্রহণ হওয়ায় বিভিন্ন কেন্দ্রে ভোটাররা নানান বিড়ম্বনার শিকার হয়েছে।

কসবা উপজেলার ৭টি ও নবীনগর উপজেলার ৭টি ইউনিয়ন মোট ১৪টি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ৯৫ জন, সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে ১৪৯ জন এবং সাধারণ সদস্য পদে ৪৫২ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন।

হিলি : দিনাজপুরের ঘোড়াঘাটে উপজেলার ৪টি ইউনিয়নে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। এর মধ্যে চেয়ারম্যান পদে ২টিতে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা এবং ২টিতে স্বতন্ত্র প্রার্থীরা জয়লাভ করেছেন। রাতে ভোট গণনা শেষে সংশ্লিষ্ট রিটার্নিং কর্মকর্তা বেসরকারিভাবে এ ফল ঘোষণা করেন।

বিজয়ীরা হলেন, ১নং বুলাকিপুর ইউনিয়নে সদের আলী (নৌকা), ২নং পালশা ইউনিয়নে কবিরুল ইসলাম (স্বতন্ত্র), ৩নং সিংড়া ইউনিয়নে সাজ্জাদ হোসেন (স্বতন্ত্র) এবং ৪নং ঘোড়াঘাট ইউনিয়নে আসাদ্দুজ্জামান ভুট্টু (নৌকা) বেসরকারি ভাবে জয়লাভ করেছেন।

মানিকগঞ্জ :

মানিকগঞ্জের শিবালয় উপজেলার সাতটি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে বিএনপি সমর্থিত তিনজন, আওয়ামী লীগ মনোনীত দু'জন এবং আওয়ামী লীগের দুই বিদ্রোহী প্রার্থী নির্বাচিত হয়েছেন।

নির্বাচিতরা হলেন-শিবালয় ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান আলাল উদ্দিন (বিএনপি সমর্থিত-স্বতন্ত্র) , উলাইল ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান আনিসুর রহমান (বিএনপি সমর্থিত-স্বতন্ত্র), মহাদেবপুর ইউনিয়নে শাহজাহান মিয়া (বিএনপি সমর্থিত-স্বতন্ত্র), উথলি ইউনিয়নে আব্বাস আলী (আওয়ামী লীগ মনোনীত), শিমুলিয়া ইউনিয়নে জহির উদ্দিন মানিক (আওয়ামী লীগ মনোনীত), আরুয়া ইউনিয়নে মোনায়েম মুনতাকিম খান অনিক (আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী-স্বতন্ত্র ) ও তেওতা ইউনিয়নে মোশারফ হোসেন মোল্লা (আওয়ামী লীগের বিদ্রাহী-স্বতন্ত্র)।

দিনাজপুর : দিনাজপুরের ৪টি উপজেলার ২১টি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে নৌকা প্রতীক নিয়ে ১১ টি এবং স্বতন্ত্র পদে ১০ জন বেসরকারি ফলাফলে বিজয়ী হয়েছেন।

৪ টি উপজেলার নির্বাচনে দায়িত্বরত রির্টানিং অফিসাররা আরটিভি নিউজকে জানিয়েছেন, দিনাজপুর সদর উপজেলার ৯টি ইউনিয়নে ৪টিতে নৌকা এবং ৫টিতে স্বতন্ত্র, বিরল উপজেলার ৬ টি ইউনিয়নে ৪টিতে নৌকা ২টিতে স্বতন্ত্র, ঘোড়াঘাটে ৪টি ইউনিয়নে ২টিতে নৌকা, ২টি স্বতন্ত্র এবং বীরগঞ্জ উপজেলার ২টি ইউনিয়নে ১টিতে নৌকা এবং ১টিতে স্বতন্ত্র পদে চেয়ারম্যান প্রার্থীরা নির্বাচিত হয়েছেন।

বগুড়া : বগুড়ার গাবতলী উপজেলার দুই ইউপিতেই নৌকা প্রার্থীর জয় হয়েছে। সোনারায় ইউপিতে মজিবর রহমান নৌকা প্রতীকে ৫ হাজার ৬০০ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী সাইফুল ইসলাম চশমা প্রতীকে ৫ হাজার ৪৪৪ ভোট পেয়েছেন।

অপরদিকে, নেপালতলী ইউপিতে শহিদুল ইসলাম রাজু নৌকা প্রতীকে ৭ হাজার ৪৮ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকতম প্রতিদ্বন্দ্বী জুলফিকার হায়দার ঘোড়া প্রতীকে ৫ হাজার ৮২৭ ভোট পেয়েছেন।

এ ছাড়া, বগুড়া সদরের ফাঁপোড় ও রাজাপুর ইউপি নির্বাচনে স্বতন্ত্র দুই প্রার্থী বিজয়ী হয়েছেন। ফাপোঁড় ইউপিতে অটোরিকশা প্রতীকে মেহেদী হাসান ২ হাজার ৮৬ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন।

এছাড়া রাজাপুর ইউপিতে রাজিবুল ইসলাম খান রাজু মোটরসাইকেল প্রতীকে ৩ হাজার ৫১০ ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছেন। সোমবার সন্ধ্যায় বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বগুড়া সদর উপজেলা নির্বাচন অফিসার এ এস এম জাকির হোসেন।

নওগাঁ : নওগাঁর নিয়ামতপুরে ৮ ইউপির ৭ টিতে আওয়ামী লীগ, একটি স্বতন্ত্র প্রার্থীর জয়। বজলুর রহমান নঈম (নৌকা), রসুলপুর: মোতালেব হোসেন বাবর (নৌকা), ভাবিচা: আলহাজ্ব ওবায়দুল হক( নৌকা) , পাড়ইল: সৈয়দ মুজিব গেন্দ্যা (নৌকা), শ্রীমন্তপুর :রফিকুল ইসলাম (নৌকা), হাজীনগর: আব্দুর রাজ্জাক (নৌকা), বাহাদুরপুর: মামুনুর রশিদ (নৌকা) এবং চন্দননগর: বদিউজ্জামান বদি (ঘোড়া) বিদ্রোহী আ. লীগ প্রার্থী বিজয়ী হয়েছেন।

পঞ্চগড়:

পঞ্চগড়ের দুটি উপজেলার তিনটি ইউপিতে সোমবার (৩১ জানুয়ারি) ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। এর মধ্যে দেবীগঞ্জ উপজেলার দেবীগঞ্জ সদর এবং দেবীডুবা ইউনিয়ন। বোদা উপজেলার ঝলই শালশিড়ি ইউনিয়ন।

ভোটগ্রহণ শেষে ফলাফল গণনার পর রিটার্নিং অফিসাররা বেসরকারিভাবে ফলাফল ঘোষণা করেন। ফলাফলে তিনটি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা মার্কার প্রার্থীরা বিজয়ী হয়েছেন।

বোদা উপজেলার ঝলই শালশিড়ি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে বর্তমান চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগের আবুল হোসেন নৌকা প্রতীকে ৫ হাজার ১'শত তিন ভোট পেয়ে বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়। আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী উপজেলা আওয়ামী লীগের ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক মনিরুজ্জামান তানু মোটরসাইকেল প্রতীকে পেয়েছেন ৫ হাজার ৯০ টি ভোট আরেক প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র (বিএনপি) শফিকুল ইসলাম ঘোড়া প্রতীকে পেয়েছেন ২ হাজার ৪শত ৩৬ ভোট । মাত্র ১৩ ভোটের ব্যবধানে বিদ্রোহী প্রার্থীকে হারিয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন আবুল হোসেন।

এদিকে দেবীগঞ্জ উপজেলার দেবীগঞ্জ সদর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ মনোনীত দেবীগঞ্জ সদর ইউপি আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল আলম এমু নৌকা প্রতীক নিয়ে ৪ হাজার ৭ শত ২৬ ভোট পেয়ে বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন । তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী ফরিদ আহমেদ টেবিল ফ্যান প্রতীকে পেয়েছেন ২ হাজার ১৫১ ভোট।

ওই উপজেলার দেবীডুবা ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা মার্কার প্রার্থী পরেশ চন্দ্র রায় প্রধান ৪ হাজার ৬৬৬ ভোট পেয়ে বেসরকারীভাবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী ফরিদ হাসান চশমা প্রতীকে পেয়েছেন ৪ হাজার ৪৫৯ ভোট।

কুড়িগ্রাম:

কুড়িগ্রামে দুই উপজেলার ৮ ইউনিয়নের মধ্যে ৫ টিতেই আ. লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী জয় পায়নি। সকল ইউপির দায়িত্বে থাকা রিটার্নিং কর্মকর্তারা এ ফলাফল ঘোষণা করেন।

এতে ভূরুঙ্গামারী উপজেলার ৩ ইউনিয়নে লাঙল প্রতীকে বিজয়ী হয়েছেন একজন ও দুটিতে নৌকার প্রার্থী বিজয়ী হয়েছেন। ভূরুঙ্গামারীর ৩ ইউপির মধ্যে শুধুমাত্র শিলখুড়ি ইউপিতে নৌকা প্রতীক নিয়ে আ. লীগ প্রার্থী আসাদুজ্জামান বিজয়ী হয়েছেন। অপর দুইটি পাথরডুবি ও ভূরুঙ্গামারী সদর ইউপিতে লাঙ্গল প্রতীক নিয়ে জাপা প্রার্থী আব্দুস সবুর ও মাহমুদুর রহমান রোজেন বিজয়ী হয়েছেন।

এদিকে, চিলমারী উপজেলার রাণীগঞ্জ ও থানাহাট ইউপিতে নৌকা প্রতীক বিজয়ী হলেও অপর তিন ইউপিতে নৌকার পরাজয় ঘটেছে। রাণীগঞ্জে আওয়ামী লীগ প্রার্থী মনজুরুল ইসলাম এবং থানাহাটে একই দলের আব্দুর রাজ্জাক নৌকা প্রতীক নিয়ে বিজয়ী হয়েছেন।

রমনা ইউপিতে মোটরসাইকেল প্রতীকে স্বতন্ত্র প্রার্থী গোলাম আশেক, চিলমারী ইউপিতে চশমা প্রতীকে স্বতন্ত্র প্রার্থী আমিনুল ইসলাম এবং অষ্টমীরচর ইউপিতে আনারস প্রতীকে স্বতন্ত্র প্রার্থী সোহরাব হোসেন জয় পেয়েছেন।

কি‌শোরগ‌ঞ্জ:

কি‌শোরগ‌ঞ্জের পাকু‌ন্দিয়া ও কু‌লিয়ারচ‌রের ১০ ইউনিয়‌নের ৫টি‌তে আওয়ামী লীগ ও ৫টি‌তে স্বতন্ত্র প্রার্থী চেয়ারম্যান নির্বা‌চিত হয়েছেন।

পাকু‌ন্দিয়া উপ‌জেলার ৯টি ইউনিয়‌নের ম‌ধ্যে ৫টি‌তে স্বতন্ত্র ও ৪টি‌তে আওয়ামী লীগ ম‌নোনীত প্রার্থীরা জয় পেয়েছেন।

পাকু‌ন্দিয়া উপ‌জেলার বু‌রো‌দিয়া ইউনিয়‌নে ৩ হাজার ৬৪১ ভোট পে‌য়ে চেয়ারম্যান নির্বা‌চিত হন স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. নাজমুল হুদা (ঘোড়া)। তার নিকটতম প্রার্থী আওয়ামী লীগ ম‌নোনীত মাহবুবুর রহমান (নৌকা) পে‌য়ে‌ছেন ৩ হাজার ৩০৭ ভোট।

নারান্দী ইউনিয়‌নে ৪ হাজার ৬৭৭ ভোট পে‌য়ে চেয়ারম্যান নির্বা‌চিত হন স্বতন্ত্র প্রার্থী মুছ‌লেহ উদ্দিন (আনারস)। তার নিকটতম প্রার্থী আওয়ামী লীগ ম‌নোনীত প্রার্থী শ‌ফিকুল ইসলাম (নৌকা) পে‌য়ে‌ছেন ৪ হাজার ৬৬৭ ভোট।

সু‌খিয়া ইউনিয়‌নে ৬ হাজার ৫৬৫ ভোট পে‌য়ে চেয়ারম্যান নির্বা‌চিত হন আওয়ামী লীগ ম‌নোনীত প্রার্থী মো. আ. হা‌মিদ (নৌকা)। তার নিকটতম স্বতন্ত্র প্রার্থী আজিজুল হক (আনারস) পে‌য়ে‌ছেন ৪ হাজার ২৭৬ ভোট।

জাঙ্গা‌লিয়া ইউনিয়‌নে ৫ হাজার ৩৯৯ ভোট পে‌য়ে চেয়ারম্যান নির্বা‌চিত হন স্বতন্ত্র প্রার্থী বুলবুল আহ‌মেদ (মোটরসাই‌কেল)। তার নিকটতম স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. আব্দুছ ছাত্তার (ঘোড়া) পে‌য়ে‌ছেন ৩ হাজার ৪৭০ ভোট।

পাটুয়াভাঙ্গা ইউনিয়‌নে ৭ হাজার ৬৯ ভোট পে‌য়ে চেয়ারম্যান নির্বা‌চিত হন স্বতন্ত্র প্রার্থী এমদাদুল হক জুটন (আনারস)। তার নিকটতম স্বতন্ত্র প্রার্থী আসাদুজ্জামান আসাদ (টে‌বিল ফ্যান) পে‌য়ে‌ছেন ২ হাজার ৩৫২ ভোট।

এগার‌সিন্দুর ইউনিয়‌নে ৫ হাজার ৩৯৫ ভোট পে‌য়ে চেয়ারম্যান নির্বা‌চিত হন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী নূরুজ্জামান মিয়া (নৌকা)। তার নিকটতম স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. আসাদুজ্জামান (মোটরসাই‌কেল) পে‌য়ে‌ছেন ৪ হাজার ৫৮১ ভোট।

চরফরাদী ইউনিয়‌নে ৬ হাজার ৮৮৮ ভোট পে‌য়ে চেয়ারম্যান নির্বা‌চিত হন আওয়ামী লীগ ম‌নোনীত প্রার্থী আ. মান্নান (নৌকা)। তার নিকটতম স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. কামাল উদ্দিন (মোটরসাই‌কেল) পে‌য়ে‌ছেন ২ হাজার ৭৭০ ভোট।

হো‌সে‌ন্দি ইউনিয়‌নে ২ হাজার ৭৬৭ ভোট পে‌য়ে চেয়ারম্যান নির্বা‌চিত হন আওয়ামী লীগ ম‌নোনীত প্রার্থী মুহাম্মদ হা‌দিউল ইসলাম (নৌকা)। তার নিকটতম স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. নাজমুল ক‌বির (ঘোড়া) পে‌য়ে‌ছেন ১ হাজার ৯৭০ ভোট।

চ‌ন্ডিপাশা ইউনিয়‌নে ৫ হাজার ৪১৩ ভোট পে‌য়ে চেয়ারম্যান নির্বা‌চিত হন স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. শামছু উদ্দিন (আনারস)। তার নিকটতম আওয়ামী লীগ ম‌নোনীত প্রার্থী মঈন উদ্দিন পে‌য়ে‌ছেন ৪ হাজার ৪৪৪ ভোট।

এদি‌কে আগের নির্বাচ‌নে স্থ‌গিত হওয়া কু‌লিয়ারচর উপ‌জেলার রামদী ইউনিয়‌নে ৮ হাজার ৭২৭ ভোট পে‌য়ে চেয়ারম্যান নির্বা‌চিত হন আওয়ামী লীগ ম‌নোনীত প্রার্থী আলাল উদ্দিন। তার নিকটতম প্র‌তিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী আল-মাসুদ মাসুদ মিয়া পে‌য়ে‌ছেন ৬ হাজার ৪২৪ ভোট।

ইসি জানিয়েছে, এই নির্বাচনে মোট ভোটার রয়েছে ৪১ লাখ ৮২ হাজার ২৬৩ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটর ২১ লাখ ১৪ হাজার ৭২০ জন, নারী ভোটার ২০ লাখ ৬৭ হাজার ৫৩৭ জন এবং ৬ জন তৃতীয় লিঙ্গের ভোটার রয়েছে।

নির্বাচনে সারাদেশে বিভিন্ন পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ১১ হাজার ৬০৪ জন প্রার্থী। এর মধ্যে চেয়ারম্যান পদে ১ হাজার ১৯৯, সংরক্ষিত আসনে ২ হাজার ৫৫৯ জন এবং সাধারণ সদস্য পদে ৭ হাজার ৮৪৬ জন।

এদিকে ষষ্ঠ ধাপে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ১৪৪ জন প্রার্থী নির্বাচিত হয়েছে। এদের মধ্যে চেয়ারম্যান পদে ১২ জন, সংরক্ষিত নারী সদস্য পদে ৩২ জন এবং সাধারণ সদস্য পদে ১০০ প্রার্থী রয়েছেন।

উল্লেখ্য, চলমান ইউপি নির্বাচনে ইতোমধ্যে পাঁচ ধাপের ভোটগ্রহণ শেষ হয়েছে। গত ২১ জুন ও ২০ সেপ্টেম্বর প্রথম ধাপে দুই দফায় ৩৬৯টি এবং ১১ নভেম্বর দ্বিতীয় ধাপে ৮৩৩টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ ছাড়াও ২৮ নভেম্বর তৃতীয় ধাপে এক হাজার ইউপিতে এবং চতুর্থ ধাপে ২৬ ডিসেম্বর ৮৩৬ ইউপিতে ভোটগ্রহণ করা হয়। পঞ্চম ধাপে গত ৫ জানুয়ারি ৭০৮ ইউপিতে ভোট হয়েছে। আজ (৩১ জানুয়ারি) ষষ্ঠ ধাপে ২১৮ ইউপিতে ভোটগ্রহণ চলছে। সপ্তম ও শেষ ধাপে ১৩৮ ইউপিতে আগামী ৭ ফেব্রুয়ারি ভোট অনুষ্ঠিত হবে।

পাঠকের মতামত:

জাতীয় এর সর্বশেষ খবর

জাতীয় - এর সব খবর



রে