ঢাকা, সোমবার, ২২ জুলাই ২০২৪, ৭ শ্রাবণ ১৪৩১

টান টান উত্তেজনায় শেষ হলো আর্জেন্টিনা-পেরুর ম্যাচ, দেখে নিন ফলাফল

খেলা ডেস্ক . ২৪আপডেট নিউজ
২০২৪ জানুয়ারি ২৫ ১১:৪১:১৭
টান টান উত্তেজনায় শেষ হলো আর্জেন্টিনা-পেরুর ম্যাচ, দেখে নিন ফলাফল

আর্জেন্টিনা অনূর্ধ্ব-২৩ দলের কোচ জাভিয়ের মাশ্চেরানো এবং অলিম্পিক কমিটির সভাপতি টমাস বাখ চেয়েছিলেন বিশ্বকাপজয়ী লিওনেল মেসি প্যারিস অলিম্পিকে খেলুক। তাদের ইচ্ছা দৃশ্যমান হতে চলেছে। আর্জেন্টিনার গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, প্যারিস অলিম্পিকে খেলার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন মেসি। বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ডি মারিয়াও বিশ্বের অন্যতম সেরা ফুটবলারের সঙ্গে অলিম্পিকে খেলতে চান। তবে তারা চাইলেই যে অলিম্পিকে খেলতে পারবে তা নয়। এ জন্য আর্জেন্টিনাকে প্রথমে কোয়ালিফাইং রাউন্ড ক্লিয়ার করতে হবে।

অলিম্পিক ফুটবলের জন্য দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চলের বাছাই পর্ব শুরু হয়েছে গত শনিবার (২১ জানুয়ারি)। যেখানে ২০০৮ সালের অলিম্পিক স্বর্ণজয়ী সবে টিকে ছিলেন। প্যারাগুয়ের সাথে পয়েন্ট ভাগাভাগি করে মাশ্চেরানোর ছাত্ররা মাঠের বাইরে চলে যায়। তবে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে পাল্টা আক্রমণ করে আলবিসেলেস্তেদের তরুণরা। গ্রুপের অন্য দলগুলো হলো চিলি, পেরু ও উরুগুয়ে।

বৃহস্পতিবার (২৫ জানুয়ারি) ভেনেজুয়েলার এস্তাদিও মিশেল ডেলগাডোতে পেরুর মুখোমুখি হবে আর্জেন্টিনা। মাঠে খেলা ছাড়াও পেশী শক্তির প্রভাব তরুণদের ম্যাচেও দেখা যায়। রেফারি উভয় দল থেকে ২৯টি ফাউল গণনা করেছেন। যেখানে আর্জেন্টিনা ১৬ ও প্যারাগুয়ে ১৩। শেষ পর্যন্ত এমন শক্তি দেখিয়ে ২-০ গোলে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে আর্জেন্টিনা। আলবিসেলেস্তেদের হয়ে দুটি করে গোল করেন থিয়াগো আলমাদা ও লুসিয়ানো গুন্ডো।

পুরো ম্যাচেই আধিপত্য ছিল আর্জেন্টিনার। ম্যাচে ৬২ শতাংশ বল নিজেদের দখলে রেখেছিল মেসি-ডি মারিয়ার উত্তরসূরিরা। পুরো ম্যাচে পেরু ১৫টি শট নিয়েছে, যার মধ্যে ৬টি লক্ষ্যে ছিল। অন্যদিকে পেরু মাত্র ৩টি শট নিতে পারলেও একটিও লক্ষ্যে ছিল না।

খেলার প্রথমার্ধে তিনটি হলুদ কার্ড পায় পেরু। শুরু থেকেই পেশিশক্তি দেখাতে ব্যস্ত দুই দলই। কিন্তু প্রথমার্ধে কোনো দলই গোল করতে পারেনি। তবে দ্বিতীয়ার্ধের ৫৩তম মিনিটে অচলাবস্থা ভাঙেন আলবিসেলেস্তে অধিনায়ক থিয়াগো আলমাদা। পেনাল্টি থেকে গোল করে দলকে এগিয়ে দেন তিনি।

এরপর গোলটি পুঁজি করতে মরিয়া হয়ে ওঠে পেরু। অন্যদিকে আর্জেন্টিনা গোল অক্ষত রেখে লিড বাড়ানোর দিকে নজর দেয়। কিন্তু পেরুর সব আক্রমণই ফিরে আসে আর্জেন্টিনার রক্ষণে। ম্যাচের ৮৭তম মিনিটে পেরুর কফিনে শেষ পেরেক ঠুকে দেন লুসিয়ানো গুন্ডো। গুন্ডো, থিয়াগো আলমাদার সহায়তায় দলের জয় নিশ্চিত করেন। এই জয়ে আর্জেন্টিনা ২ ম্যাচে ৪ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে উঠে এসেছে। একই ম্যাচে সমান সংখ্যক পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে প্যারাগুয়ে।

প্রসঙ্গত, দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চল থেকে দুটি দল অলিম্পিকে খেলার সুযোগ পাবে। অঞ্চল থেকে ১০ টি দল অংশ নিয়েছে এবং দুটি গ্রুপে নির্বাচিত হবে। ‘এ’ গ্রুপে ব্রাজিলের সঙ্গী ভেনিজুয়েলা, কলম্বিয়া, বলিভিয়া ও ইকুয়েডর। প্রতিটি গ্রুপ থেকে শীর্ষ দুটি দল বাছাইপর্বের ফাইনালে উঠবে। চার দলের প্রতিযোগিতা শেষে সেরা দুই দল জায়গা পাবে প্যারিস অলিম্পিকে।

আপনার জন্য বাছাই করা কিছু নিউজ



রে