ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১

ওয়েস্ট ইন্ডিজ বিদায় করে সেমি ফাইনালে দক্ষিণ আফ্রিকা

খেলা ডেস্ক . ২৪আপডেট নিউজ
২০২৪ জুন ২৪ ১১:৪৮:৫৭
ওয়েস্ট ইন্ডিজ বিদায় করে সেমি ফাইনালে দক্ষিণ আফ্রিকা

দক্ষিণ আফ্রিকা টানা ছয়টি ম্যাচ জয়ের ধারাবাহিকতা বজায় রেখে এবং বৃষ্টিবিঘ্নিত ম্যাচে জটিল লক্ষ্য সফলভাবে তাড়া করে সেমি-ফাইনালে পৌঁছেছে। এই জয়ে তারা সহ-আয়োজক ওয়েস্ট ইন্ডিজকে টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে দিয়েছে এবং সুপার এইট গ্রুপে শীর্ষ স্থান অর্জন করেছে। এর ফলে তারা সম্ভবত সেমি-ফাইনালে ভারতের মুখোমুখি হবে না। দক্ষিণ আফ্রিকার এতদিনের অপেক্ষার পর এবার তাদের ভাগ্যের পরিবর্তনের ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে।

দক্ষিণ আফ্রিকা এখন এমন ম্যাচ জিতছে যা সাধারণত হারার কথা ছিল। তাদের টেনাসিটি বেড়েছে, যা তাদের রাগবি দল স্প্রিংবোকসের মতো। এই আত্মবিশ্বাসের কারণে তারা এক দশকের মধ্যে প্রথমবারের মতো টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের নকআউটে পৌঁছেছে।

নতুন অধিনায়ক মার্করামের নেতৃত্বে

এডেন মার্করাম, যিনি ২০১৪ সালে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ জিতেছিলেন, এখন সিনিয়র দলের অধিনায়ক। তিনি নিজের বোলিংয়ের ওপর ভরসা রেখেছেন এবং স্পিন বোলিংকে প্রধান অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করেছেন। দক্ষিণ আফ্রিকার স্পিনাররা ১২ ওভারে ৭৯ রানে ৫ উইকেট শিকার করে।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের ব্যাটিং ব্যর্থতা

ওয়েস্ট ইন্ডিজের ব্যাটিংয়ের ব্যর্থতা তাদের বিদায়ের প্রধান কারণ। মায়ার্স এবং চেজের ৮১ রানের পার্টনারশিপ ছাড়া আর কেউ ১৫ রানের বেশি করতে পারেনি। দক্ষিণ আফ্রিকার স্পিনাররা তাদের ৫৭ ডট বল খেলতে বাধ্য করেছে।

দক্ষিণ আফ্রিকার ফিল্ডিং ও রাবাদার দেরি করে বোলিং

মার্করাম ৪ ওভার বোলিং করেন এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ৫ রানে ২ উইকেটে ফেলে দেন। কিন্তু ফিল্ডিং মিস এবং ক্যাচ ড্রপের কারণে কিছুটা বিপদে পড়ে। তবে, রাবাদা দেরি করে বোলিংয়ে এসে দ্রুত ২ উইকেট তুলে নিয়ে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নেয়।

ক্লাসেনের ইনিংস

বৃষ্টির পর দক্ষিণ আফ্রিকার লক্ষ্য ছিল ১২৩ রান। ক্লাসেনের ঝড়ো ইনিংস (প্রথম বলে ছক্কা এবং শেষ তিন বলে চারে) দক্ষিণ আফ্রিকাকে জয়ের পথে নিয়ে আসে।

শেষমেশ

দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রিকেটের ইতিহাসে অনেক বৃষ্টিবিঘ্নিত ম্যাচে হতাশা এসেছে, কিন্তু এবার তারা জয় পেয়েছে এবং সেমি-ফাইনালে পৌঁছেছে। কাগিসো রাবাদা এবং মার্কো জানসেনের ব্যাটিংয়ে তারা জয় নিশ্চিত করেছে।

দক্ষিণ আফ্রিকা ১২৪/৭ (স্টাবস ২৯, ক্লাসেন ২২, জানসেন ২১*, চেজ ৩-১২) ডিএলএস পদ্ধতিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ১৩৫/৮ (চেজ ৫২, মায়ার্স ৩৫, শামসি ৩-২৭) তিন উইকেটে পরাজিত করেছে।

আপনার জন্য বাছাই করা কিছু নিউজ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



রে