ঢাকা, সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ২ বৈশাখ ১৪৩১

জেনেনিন শাওয়াল মাসের ছয় রোজার গুরুত্ব

২০২৩ এপ্রিল ২৫ ২১:৩৬:২৬
জেনেনিন শাওয়াল মাসের ছয় রোজার গুরুত্ব

-হাসান সহীহ, ইবনু মা-জাহ (১৭১৬), মুসলিম

ফুটনোটঃ

জাবির, আবূ হুরায়রা ও সাওবান (রাঃ) হতেও এই অনুচ্ছেদে হাদীস বর্ণিত আছে। আবূ ঈসা আবূ আইয়ূব (রাঃ) হতে বর্ণিত হাদীসটিকে হাসান সহীহ্‌ বলেছেন। একদল বিশেষজ্ঞ আলিম এই হাদিসের ভিত্তিতে শাওয়াল মাসের ছয়দিন রোজা পালন করাকে মুস্তাহাব মনে করেন।

ইবনুল মুবারাক বলেন, প্রতি মাসে তিনদিন রোজা পালনের মত এটিও মুস্তাহাব। এ রোজা রমজানের রোজার পরপরই পালনের কথা কোন কোন হাদিসে উল্লেখ আছে। তাই তিনি এই ছয়টি রোজা শাওয়াল মাসের শুরুর দিকে পালন করাকে বেশি পছন্দীয় মনে করেছেন।

তিনি আরো বলেছেনঃ শাওয়াল মাসের ভিন্ন ভিন্ন দিনের রোজা পালন করাও জায়েজ আছে।

আবূ ঈসা বলেন, বর্ণনাকারী আবদুল আযীয ইবনু মুহাম্মাদ এই হাদিসটি সাফওয়ান ইবনু সুলাইম ও সা’দ ইবনু সাঈদের সূত্রে উমার ইবনু সাবিত হতে আবূ আইয়ূব (রা.)-এর সনদে রাসূলুল্লাহ (সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়া সাল্লাম) হতে বর্ণনা করেছেন। শুবা (রাঃ) এই হাদিস ওয়ার্‌কা ইবনু উমার হতে সা’দ ইবনু সাঈদ (রহঃ)-এর সূত্রে বর্ণনা করেছেন। এই সা’দ ইবনু সাঈদ হলেন ইয়াহ্‌ইয়া ইবনু সাঈদ আল-আনসারীর ভাই। একদল হাদীস বিশেষজ্ঞ তার স্মৃতিশক্তির সমালোচনা করেছেন।

হাসান বাসরী হতে বর্ণিত আছে যে, তার নিকট শাওয়ালের ছয়টি রোজার কথা উল্লেখ করা হলে তিনি বললেন, আল্লাহর শপথ তিনি পূর্ণ বৎসরের পরিবর্তে এই মাসের রোজার প্রতি সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন। সনদ সহীহ্‌, মাকতু।

জামে' আত-তিরমিজি, হাদিস নং ৭৫৯হাদিসের মান: হাসান সহিহ

আপনার জন্য বাছাই করা কিছু নিউজ



রে