ঢাকা, রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৩ ফাল্গুন ১৪৩০

সেঞ্চুরির করার পর নির্বাচকদের উদ্দেশ্যে মুখ খুললেন হৃদয়!

খেলা ডেস্ক . ২৪আপডেট নিউজ
২০২৪ ফেব্রুয়ারি ১০ ১০:২২:৫৫
সেঞ্চুরির করার পর নির্বাচকদের উদ্দেশ্যে মুখ খুললেন হৃদয়!

কুমিল্লার ভিক্টোরিয়ান্সরা প্রথমেই পথ হারায় দুর্দান্ত লক্ষ্যের তাড়া করতে গিয়ে। ২৩ রান করে সাজঘরে ফেরেন টপ অর্ডারের তিন ব্যাটসম্যান। হৃদয়ও এককভাবে দলকে এই অবস্থান থেকে টেনে আনেন। তিনি স্ট্যাটাসের প্রয়োজনীয়তা পূরণ করেন এবং একটি চমৎকার ব্যাটিং এবং সেঞ্চুরি করে দলকে জয়ী করেন।

দুর্দান্ত ঢাকার বিপক্ষে ৫৭ বলে ১০৮ রান করেন হৃদয়। তাদের ইনিংসের সুবাদে জিতেছে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। যে কারণে ম্যান অব দ্য ম্যাচের পুরস্কারও মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যানের হাতে।

ম্যাচের পর হৃদয় বলেছেন: "আমি শুধু দ্রুত ম্যাচ শেষ করার চেষ্টা করেছি। আমি সেঞ্চুরি করিনি। এমনকি ৯০ এর পরেও না। আমি ম্যাচ শেষ করার চেষ্টা করেছি। প্রতিটি ব্যাটসম্যানই সেঞ্চুরি করার স্বপ্ন দেখে। আমি একটি সেঞ্চুরি করতে পারিনি। গত বছরে সুযোগ ছিল, এখন হয়ে গেছে।" উইকেট হারালেও আমার পরিকল্পনা ছিল ম্যাচ খেলার।

হৃদয়ের কাছে মিরপুরের উইকেট এদিন তুলনামূলক ভালোই মনে হয়েছে, ‘অন্য দিনের তুলনায় উইকেট ভালো ছিল।’ ইনিংসে ৭ ছক্কার মধ্যে কোনটা সবচেয়ে বেশি ভালো লেগেছে? এমন প্রশ্নে হৃদয় বলেন, ‘কোনটা বলতে পারব না। কিন্তু ৬ মারতে ভালোই লাগে।’

বড় ছয় মারা নিয়ে হৃদয় বলেন, ‘যেটা বললেন, ছয় মারতে পাওয়ার (দরকার হয়), বড় প্লেয়াররা ওয়েস্ট ইন্ডিজের যারা আছে, তারাই বড় ছয় মারে। আমাদের দেশের ব্যাটাররাও বড় ছয় মারে। আপনি যদি খেয়াল করে দেখেন, (পাওয়ার থাকলে) প্রত্যেকটা ব্যাটারই বড় বড় ছয় মারতে পারে।’

আপনার জন্য বাছাই করা কিছু নিউজ



রে