ঢাকা, রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৩ ফাল্গুন ১৪৩০

ইমরান খানের দল সহ এই ভাবে হতে যাচ্ছে পাকিস্তানের জোট সরকার গঠনে!

বিশ্ব ডেস্ক . ২৪আপডেট নিউজ
২০২৪ ফেব্রুয়ারি ১২ ১৩:০৪:১৩
ইমরান খানের দল সহ এই ভাবে হতে যাচ্ছে পাকিস্তানের জোট সরকার গঠনে!

নওয়াজের পাকিস্তান মুসলিম লিগ (পিএমএল-এন) দল পাকিস্তানে জোট সরকার গঠনের একটি ফর্মুলা তৈরি করেছে। এই কৌশল নিয়েই তারা মিত্রদের সঙ্গে আলোচনা চালিয়ে যেতে চায়। পিএমএল-এন সূত্রে জানা গেছে, পাকিস্তান পিপলস পার্টি (পিপিপি) সহ মিত্ররা যদি প্রধানমন্ত্রীর পদ পিএমএল-এন-এর হাতে তুলে দিতে রাজি হয়, তাহলে রাষ্ট্রপতি ও সংসদের স্পিকারের পদ পিপিপিকে দেওয়া হতে পারে।

একইভাবে ডেপুটি স্পিকারের পদে কাকে দেওয়া যায় তাও বিবেচনা করা হয়। এ ক্ষেত্রে মুত্তাহিদা কওমি মুভমেন্ট-পাকিস্তানের (এমকিউএম-পি) প্রস্তাব করা হয়েছে অথবা স্বতন্ত্র হিসেবে নির্বাচনে জয়ী কোনো প্রভাবশালী প্রার্থী জোট সরকারে যোগ দিলে তাকে ডেপুটি স্পিকারের পদে নিয়োগ দেওয়া যেতে পারে।

এদিকে পিএমএল-এন অর্থ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব নিজের হাতে রাখতে পারে। পিএমএল-এন পারস্পরিক আলোচনার ভিত্তিতে মিত্রদের মধ্যে অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রণালয় ভাগ করে নেওয়ার সম্ভাবনা বজায় রাখতে চায়। দলের দ্বারা নির্ধারিত প্রাথমিক কৌশলে এটি বলা হয়েছে।

পিএমএল-এন নেতা নওয়াজ শরিফ, শাহবাজ শরীফ, পিপিপি নেতা আসিফ আলী জারদারি, বিলাওয়াল ভুট্টো জারদারি, এমকিউএম-পি নেতা খালিদ মকবুল সিদ্দিকী, জামাত উলেমা-ই ইসলাম (জেইউআই) নেতা মাওলানা ফজলুর রহমান, পাকিস্তান মুসলিম লীগ-কায়েদ আজমির (পিএমএল-ঘ) নেতা সুজাত হোসেন এবং অন্যান্য প্রভাবশালী নেতাদের মধ্যে ক্ষমতা ভাগাভাগি মূল আলোচনা হতে পারে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, সম্ভাব্য মিত্রদের সঙ্গে আলোচনার ভিত্তিতে সিনেট পদের সিদ্ধান্ত নিতে চায় নওয়াজের দল সিনেটের তারা চেয়ারম্যান ও ডেপুটি চেয়ারম্যানের পদ চায়।

ইতিমধ্যে ক্ষমতা ভাগাভাগির আলোচনা শুরু হয়ে গেছে। বৈঠক করেছেন পিএমএল-এন ও পিপিপির নেতারা। জানা গেছে, জোট সরকার গড়তে দল দুটির প্রাথমিক মতৈক্য হয়েছে। পিএমএল-এনের আরেকটি সূত্র জানিয়েছে, নওয়াজের দলের শীর্ষ নেতাদের পক্ষ থেকে পিপিপি, এমকিউএম-পি, জেইউআইয়ের শীর্ষ নেতাদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছে। জোট সরকার গড়তে প্রাথমিক কৌশল নিয়ে আলোচনা চলছে।

এদিকে এবারের নির্বাচনে সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের দল পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফের (পিটিআই) সমর্থন নিয়ে স্বতন্ত্র হিসেবে জিতে আসা রাজনীতিকদেরও দলে টানার চেষ্টা করছে পিএমএল-এন। সূত্রের তথ্য অনুযায়ী, অন্তত চারজন স্বতন্ত্র প্রার্থী নওয়াজের দলে ভিড়েছেন। আরও কয়েকজন আসতে পারেন। এখন স্বতন্ত্রদের দলে টানার একই উদ্যোগ এগিয়ে নিচ্ছে পিপিপিও।

অন্যদিকে জোট সরকারে যাওয়া না-যাওয়ার বিষয়ে এখনো কিছু জানাননি এমকিউএম-পি ও জেইউআইয়ের নেতারা। নিজ দলের সমন্বয় কমিটির বৈঠকে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে এমকিউএম-পি। আর জেইউআইয়ের নেতা মওলানা ফজলুর রহমান বিষয়টি নিয়ে সমমনা অন্যান্য দলের নেতাদের সঙ্গে আলাপ-আলোচনা করবেন বলে দলসংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

সূত্র: দ্য এক্সপ্রেস ট্রিবিউন

আপনার জন্য বাছাই করা কিছু নিউজ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



রে