ঢাকা, রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ১ বৈশাখ ১৪৩১

বিশ্বকাপ থেকে বিপিএলে, পিতা-পুত্রের নতুন গল্প বাংলাদেশ ক্রিকেটে

খেলা ডেস্ক . ২৪আপডেট নিউজ
২০২৪ ফেব্রুয়ারি ১৫ ২০:৫৩:৪৮
বিশ্বকাপ থেকে বিপিএলে, পিতা-পুত্রের নতুন গল্প বাংলাদেশ ক্রিকেটে

সম্প্রতি দেখা গেছে ১৯ বছরের কম বয়সী অনেক ক্রিকেটার জাতীয় দলে ঢুকে ভালো পারফর্ম করছে। অনেক ক্রিকেটার জাতীয় দলে খেলার আগে বিপিএল খেলার সুযোগ পান এবং তারা তাদের পারফরম্যান্সও দেখিয়েছেন। বেসরকারি টিভি চ্যানেলে সাক্ষাৎকার দিয়েছেন একজন ক্রিকেটার সেটা আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম।

সদ্য বয়ঃসন্ধিতে পৌছে গেলেও জিশান আলম খুবই ধীরস্থির ও শান্ত স্বভাবের। বিশ্বকাপ থেকে সরাসরি বিপিএল প্ল্যাটফর্মে দুর্দান্ত জায়গা এসেছেন তিনি। খবরটা শুনে কেমন লাগলো?“ প্রথমে আমার বাবাকে ফোন দিচ্ছে। ফোন দিয়ে বলেছে, তোমাকে এমন এমন কল করতে পারে। চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স থেকে অফিসিয়াল। বাবাই এক প্রথম জানছে পর আম্মুকে আমি জানিয়েছি বাসায় যেহেতু ছিলাম”

শেষপর্যন্ত চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়ার কে হারিয়েছেন কেমন দেখছেন, অনুশীলন ম্যাচে আমরা যতটা দেখেছি তার চেয়ে তারা অনেক ভালো ক্রিকেট খেলেছে।

জিশানকে নিয়ে আলোচনার কারণ আছে আরও একটা বাংলাদেশ জাতীয় দলের সাবেক ক্রিকেটার জাহাঙ্গীর আলমের একমাত্র সন্তান। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বাবা ছেলের জাতীয় দলে খেলার উদাহরণ অনেক৷ এবারও হয়তো বাংলাদেশও পেতে যাচ্ছে এমন এক জুটি বাবার পরিচয় জিশানের জন্য বিশাল এক প্রাপ্তি। “ পরিবারের সবাই ক্রিকেটকে প্লেয়ার ছিলেন বাবা-চাচা সবার প্রায় ছিলেন। তাঁর জন্যই ক্রিকেটে আসা আমার আশা আছে বাবার স্বপ্ন আমি পূরণ করতে পারি”

জাতীয় দলে আপনার আইডল কে “ ন্যাশনাল টিম আইডল হচ্ছে দুইজন প্রথম হচ্ছেন সাকিব ভাই, দ্বিতীয় হচেছ লিটন ভাই।” সাকিব ভাইয়ের সাথে কথা হয়েছে কি না না “ছোট বেলায় একবার যখন বাবা এনসিএলে কোচ ছিলেন তখন মানে একদিন বাবা ফোনে দু মিনিটের মত কথা বলছিলাম ফোনে আর সামনাসামনি কোনও কথা হয়নি”

টিমের মধ্যে ভালো বন্ধু কে, “বেস্ট ফ্রেন্ড বলতে গেলে সবাই কিন্তু আমার সাথে অনেক ভালো সম্পর্ক আরিফুলের, অর্ণব তাদের সাথে আমার অনেক বন্ধু কিন্তু রাব্বি ভাই আমার দেশই তার সাথে তো ছোট বেলাতে একসাথে কিন্তু সবার সাথে আমার অনেক ভালো বন্ডিং ছিল।” ২০২০ ১৯ অনূর্ধ্ববিশ্বকাপের পর অনেক ব্যাটারি উঠে এসেছেন সিনিয়র ক্রিকেটে। তবে জেসওয়ালরা যেখানে শুরুতেই ধাক্কা দেন সেখানে বাংলাদেশের অনেকেই এখনও নিজেদের মেলে ধরতে পারেননি। জিসানের কাছে তাই জানতে চাওয়া এই ব্যবধানের কারণ কী? আমি মনে করি, হয়তোবা মাইন্সের কারণে এমনটা হয়ে থাকে জাস্ট সবকিছু নরম্যাল কিন্তু ওদের মাইন্ডসেট অনেক স্ট্রং থাকে। ওদের ফোকাসটা একদিকে থাকে আমাদের ফোকাসটা নানা দিকে থাকে। যার কারণে আমরা ওদিকে একটু ক্যাম্পের হয়।

আমাদের পারফরম্যান্সটা কিন্তু ইদানিং আমাদের দেখেন তওহীদ হুদয় ভাই, তানজিদ তামিম ভাই, তানজিম সাকিব ভাই আর আমাদের টেষ্ট টিমে খেলতেছেন শাহাদৎ দিপু ভাই তারা কিন্তু রেগুলার পারফরম্যান্স করে যাচ্ছে ৷ ইভন কি আমাদের জয় ভাই অনেক ভালো পারফরম্যান্স করছেন। এখন আমাদের বলতে গেলে ১৯ থেকে অনেক ভালো ভালো প্লেয়ার ইনক্লুড হচ্ছেন।” এইচ এস সি দেবেন এ বছর আমরা জানি তো পড়াশুনা ক্রিকেট পাশাপাশি কীভাবে চালাচ্ছেন “পড়াশুনা টা একটু র্টাফ যেহেতু মানে পড়ার টাইমই না পাওয়ার মতোই পাই না। চেষ্টা করি যে পড়াশোনার জন্য কিন্তু পাই না। সময়টা পাই না কিন্তু ম্যানেজ করতে।”

আপনার জন্য বাছাই করা কিছু নিউজ



রে