ঢাকা, রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ৮ বৈশাখ ১৪৩১

লজ্জ্বার রেকের্ডে টেস্টে সবার শীর্ষে বাংলাদেশ

খেলা ডেস্ক . ২৪আপডেট নিউজ
২০২৪ এপ্রিল ০২ ০৯:৫০:৪১
লজ্জ্বার রেকের্ডে টেস্টে সবার শীর্ষে বাংলাদেশ

বাংলাদেশ সবচেয়ে বেশি স্ট্রাগল করেই চলেছে। বর্তমানে বাংলাদেশের অবস্থা আরও খারাপ। সর্বশেষ পাঁচটি টেস্ট ইনিংসের একটিতেও দুইশ স্পর্শ করতে পারেনি টাইগাররা। তবে বাংলাদেশের ব্যাটিংয়ের এই ভঙ্গুর দশা অবশ্য নতুন কিছু নয়। সেই ২০০০ সালে টেস্ট মর্যাদা পাওয়ার পর থেকে এমন অপ্রত্যাশিত চিত্রের দেখা মিলছে নিয়মিত। একটি পরিসংখ্যানে আরও প্রকট হয়ে ওঠে ব্যাট হাতে টাইগারদের দুর্বলতা। সাদা পোশাকের ক্রিকেটে অন্তত ১০ ম্যাচ খেলা দলগুলোর মধ্যে দুইশর নিচে অলআউট হওয়ার হারে তাদের অবস্থান শীর্ষে।

সোমবার চট্টগ্রামে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টে ফের নখদন্তহীন ব্যাটিং পারফরম্যান্স করে বাংলাদেশ। তৃতীয় দিনের চা বিরতির আগে তাদের প্রথম ইনিংস গুটিয়ে যায় স্রেফ ১৭৮ রানে। ফিফটি করতে পারেন কেবল ওপেনার জাকির হাসান। তিনি ১০৪ বল মোকাবিলায় করেন ৫৪ রান। দুই অঙ্কে যেতে পারেন আর মাত্র চারজন। টেস্টে এই নিয়ে টানা পাঁচ ইনিংসে দুইশ রানের নিচে অলআউট হলো বাংলাদেশ। সবগুলোই ঘরের মাঠে।

সিলেটে সিরিজের প্রথম টেস্টে লঙ্কানদের বিপক্ষে যথাক্রমে ১৮৮ ও ১৮২ রানে থেমেছিল বাংলাদেশের ইনিংস। এর আগে গত ডিসেম্বরে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে মিরপুর টেস্টে তাদের সংগ্রহ ছিল যথাক্রমে ১৭২ ও ১৪৪ রান।

জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ নেমেছে নিজেদের ইতিহাসের ১৪২তম টেস্টে। তারা এখন পর্যন্ত খেলেছে ২৭৬ ইনিংস (এই ম্যাচের প্রথম ইনিংসসহ)। এর মধ্যে ১০২ বার পারেনি দুইশ ছুঁতে, অর্থাৎ শতকরা ৩৬.৯৬ ভাগ ইনিংসে। আরও সহজ করে বললে, গড়ে প্রতি তিন ইনিংসে একবার দুইশর নিচে থেমেছে তারা। টেস্টে বাংলাদেশের চেয়ে ৩০১ ইনিংস (এই ম্যাচের দ্বিতীয় ইনিংস বাদে, এখনও ব্যাটিং চলমান) বেশি খেলেছে শ্রীলঙ্কা। তারাও সমান ১০২ বার অলআউট হয়েছে দুইশর নিচে, অর্থাৎ মাত্র ১৭.৬৮ শতাংশ ইনিংসে।

এই তালিকায় বাংলাদেশের পরের স্থানেই আছে জিম্বাবুয়ে। তারা শতকরা ৩১.৫৬ ভাগ ইনিংসে অলআউট হয়েছে দুইশর আগে। এই পরিসংখ্যানে অন্তত ২০ শতাংশের ওপরে আছে আর দুটি দল। নিউজিল্যান্ড ২৩.৭৩ ইনিংসে ও দক্ষিণ আফ্রিকা ২১.৪৯ শতাংশ ইনিংসে পারেনি দুইশ রান করতে।

বাংলাদেশের ঠিক বিপরীত অবস্থানে রয়েছে অস্ট্রেলিয়া। টেস্টে দুইশর নিচে অলআউট হওয়ার হারে তাদের অবস্থান সবার নিচে, শতকরা মাত্র ১৬.৩৮ ভাগ ইনিংসে। অস্ট্রেলিয়ার ঠিক পেছনেই রয়েছে ভারত। তারা ১৬.৬৫ শতাংশ ইনিংসে পারেনি দুইশ স্পর্শ করতে। এছাড়া, পাকিস্তান ১৭.৫৮, ইংল্যান্ড ১৮.২৩ ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১৯.১৮ শতকরা ইনিংসে গুটিয়ে গেছে দুইশর নিচে।

(টেস্ট পরিবারের দুই নতুন সদস্য আফগানিস্তান ও আয়ারল্যান্ড এখনও ১০ টেস্ট খেলেনি। আফগানরা এই সংস্করণে ৯ ও আইরিশরা ৮ ম্যাচ খেলেছে।)

টেস্টে ২০০ রানের নিচে অলআউটের হারে বাংলাদেশই শীর্ষে

বাংলাদেশ এখন পর্যন্ত খেলেছে ২৭৬ ইনিংস (এই ম্যাচের প্রথম ইনিংসসহ)। এর মধ্যে ১০২ বার পারেনি দুইশ ছুঁতে, অর্থাৎ শতকরা ৩৬.৯৬ ভাগ ইনিংসে।
ছবি: ফিরোজ আহমেদ

গত পাঁচটি টেস্ট ইনিংসের একটিতেও দুইশ স্পর্শ করতে পারেনি বাংলাদেশ। এই সংস্করণে তাদের ব্যাটিংয়ের এই ভঙ্গুর দশা অবশ্য নতুন কিছু নয়। সেই ২০০০ সালে টেস্ট মর্যাদা পাওয়ার পর থেকে এমন অপ্রত্যাশিত চিত্রের দেখা মিলছে নিয়মিত। একটি পরিসংখ্যানে আরও প্রকট হয়ে ওঠে ব্যাট হাতে টাইগারদের দুর্বলতা। সাদা পোশাকের ক্রিকেটে অন্তত ১০ ম্যাচ খেলা দলগুলোর মধ্যে দুইশর নিচে অলআউট হওয়ার হারে তাদের অবস্থান শীর্ষে।

সোমবার চট্টগ্রামে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টে ফের নখদন্তহীন ব্যাটিং পারফরম্যান্স করে বাংলাদেশ। তৃতীয় দিনের চা বিরতির আগে তাদের প্রথম ইনিংস গুটিয়ে যায় স্রেফ ১৭৮ রানে। ফিফটি করতে পারেন কেবল ওপেনার জাকির হাসান। তিনি ১০৪ বল মোকাবিলায় করেন ৫৪ রান। দুই অঙ্কে যেতে পারেন আর মাত্র চারজন। টেস্টে এই নিয়ে টানা পাঁচ ইনিংসে দুইশ রানের নিচে অলআউট হলো বাংলাদেশ। সবগুলোই ঘরের মাঠে।

সিলেটে সিরিজের প্রথম টেস্টে লঙ্কানদের বিপক্ষে যথাক্রমে ১৮৮ ও ১৮২ রানে থেমেছিল বাংলাদেশের ইনিংস। এর আগে গত ডিসেম্বরে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে মিরপুর টেস্টে তাদের সংগ্রহ ছিল যথাক্রমে ১৭২ ও ১৪৪ রান।

দলম্যাচইনিংসদুইশর নিচে অলআউট হওয়া ইনিংসদুইশর নিচে অলআউট হওয়া ইনিংসেরশতকরা হার
অস্ট্রেলিয়া ৮৬৬ ১৫৮১ ২৫৯ ১৬.৩৮
ভারত ৫৭৯ ১০২৭ ১৭১ ১৬.৬৫
পাকিস্তান ৪৫৬ ৮১৯ ১৪৪ ১৭.৫৮
শ্রীলঙ্কা ৩১৬ ৫৭৭ ১০২ ১৭.৬৮
ইংল্যান্ড ১০৭১ ১৯৩১ ৩৫২ ১৮.২৩
ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৫৭৫ ১০৪৮ ২০১ ১৯.১৮
দক্ষিণ আফ্রিকা ৪৬৪ ৮৪৭ ১৮২ ২১.৪৯
নিউজিল্যান্ড ৪৭০ ৮৬৪ ২০৫ ২৩.৭৩
জিম্বাবুয়ে ১১৭ ২২৫ ৭১ ৩১.৫৬
বাংলাদেশ ১৪২ ২৭৬ ১০২ ৩৬.৯৬

আপনার জন্য বাছাই করা কিছু নিউজ



রে