ঢাকা, সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১

সদ্য সংবাদ

আফগানিস্তানের বিপক্ষে নতুন সময়ে মাঠে নামছে বাংলাদেশ, দেখেনিন সময়*** আজ কোস্টারিকার বিপক্ষে কোপা আমেরিকায় নিজেদের প্রথম ম্যাচে জন্য শুরুর একাদশ ঘোষণা করলো ব্রাজিল*** নকআউট পর্ব নিশ্চিত করতে চিলির বিপক্ষে ম্যাচের জন্য শক্তিশালী একাদশ ঘোষণা করলো আর্জেন্টিনা*** আফগানিস্তানের বিপক্ষে অঘোষিত ফাইনালের জন্য শক্তিশালী একাদশ ঘোষণা করলো বাংলাদেশ*** আজ বাঁচা মরার ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে শক্তিশালী একাদশ ঘোষণা করলো ভারত*** শেষ মুহূর্তের গোলে শেষ হলো জার্মানি ও সুইজারল্যান্ডের ম্যাচ, দেখেনিন ফলাফল*** আফগানিস্তান বনাম বাংলাদেশ ও অস্ট্রেলিয়া বনাম ভারতের ম্যাচসহ টিভিতে আজকের খেলা***

ডেড বল নাকি চার রান, দেখেনিন ক্রিকেটের আইন কী বলে

খেলা ডেস্ক . ২৪আপডেট নিউজ
২০২৪ জুন ১১ ১২:০৩:৪৩
ডেড বল নাকি চার রান, দেখেনিন ক্রিকেটের আইন কী বলে

ছোট টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে জয়ে খুব কাছে গিয়ে হেরেছে বাংলাদেশ। নিউইয়র্কের নাসাউয়ের কঠিন পিচে বাংলাদেশকে জয়ের স্বপ্ন দেখাছিল মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ও তাওহীদ হৃদয়। তবে এক আম্পায়ার্স কলে তছনছ হয়ে যায় বাংলাদেশের ইতিহাস গড়ার স্বপ্ন। এদিন অবশ্য ভাগ্যও কিছুটা খারাপ ছিল শান্তদের।

এদিন দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে ৪ রানে হেরেছে বাংলাদেশ। অথচ মাহমুদউল্লাহ পায়ে লেগে একটা চার হয় কিন্তু সেইটা দেয়নি আম্পায়ার। যে চারটি হলেই ম্যাচ জিতে যেতে বাংলাদেশ। ১১৪ রান তাড়া করতে নেমে ২০ ওভার শেষে ৭ উইকেট হারিয়ে ১০৯ রানে থেমেছে বাংলাদেশ। ৩৪ বলে ৩৭ রান করে হৃদয় আর ২৭ বলে ২০ রান করে আউট হন মাহমুদউল্লাহ।

বাংলাদেশের এমন হারের পর আম্পায়ারের সিদ্ধান্ত নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে। আম্পায়ারের সিদ্ধান্ত তাই পাল্টে যায়। কিন্তু নিয়ম অনুযায়ী, আম্পায়ার আউট দেওয়ার পর বল ডেড হয়ে যাওয়ায় লেগ বাই হিসেবে ৪ রান পায়নি বাংলাদেশ।

বাংলাদেশ শেষ পর্যন্ত ম্যাচ হেরেছে ওই চার রানেই। হারের কারণ হিসেবে আম্পায়ার স্যাম নোগাস্কিকেই দুষছেন দেশের ক্রিকেটভক্তরা। সাবেক ক্রিকেটারদের মুখেও আম্পায়ারিং এর সমালোচনা। ডেডবল সংক্রান্ত বেশ কটি আইন রয়েছে। ক্রিকেটীয় আইনের ২০.২ ধারায় বলা আছে, ম্যাচে ডেড বল নির্ধারণের ক্ষমতা শুধুই আম্পায়ারের। বল শেষ পর্যন্ত মীমাংসা হয়েছে কি না, তা সিদ্ধান্ত নেবেন আম্পায়ার। অন্য আরেকটি ধারায় (২০.১.১.১) বলা হয়েছে, বল তখনই ডেড হবে যখন তা উইকেটরক্ষক কিংবা বোলারের হাতে জমা পড়বে। বোলিং প্রান্তের আম্পায়ার যখন বুঝতে পারবেন, ফিল্ডিং দল ও ব্যাটসম্যানদের খেলা থেমেছে, তখনই সেটা ডেড বল।

এছাড়া (২০.১.১.৩) ধারায় বলা হয়েছে, যে মুহূর্তে বলের সাপেক্ষে আউটের সিদ্ধান্ত আসবে, সেই মুহূর্ত থেকে এটি ডেডবল ঘোষণা করা হবে। এর মানে দাঁড়ায়, আম্পায়ার স্যাম নোগাস্কি— বার্টম্যানের আবেদনে আঙুল তোলার পর থেকেই সেটি ডেডবলই ছিল।

অবশ্য শুধু এই একটি সিদ্ধান্তই নয়, বরং আম্পায়ারের বেশ কয়েকটি সিদ্ধান্ত বিতর্কের জন্ম দিয়েছে। যার মধ্যে তাওহিদ হৃদয়ের আউটও রয়েছে। তার হৃদয়ের আউটে ডিআরএসে ম্যানিপুলেশনের অভিযোগও তুলছেন কেউ কেউ। এর বাইরে দুটি নিশ্চিত ওয়াইড বলও আম্পায়ার বৈধ বল বলে ঘোষণা করেন।

আপনার জন্য বাছাই করা কিছু নিউজ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



রে