চারদিনের প্রথম আনঅফিসিয়াল ম্যাচের চতুর্থ ও শেষদিনে খেলতে নেমেই নাইমের ঘূর্ণিতে আবারো নাকানিচুবানি খাচ্ছে শ্রীলঙ্কা। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত তাদের সংগ্রহ ৯ উইকেটে ২৩৪ রান। একাই ৭ উইকেট নিয়েছেন স্পিনার নাইম হাসানম

এর আগে তৃতীয় দিনে ৪ উইকেটে ১০১ রান নিয়ে দিনের খেলা শুরু করেছিল শ্রীলংকা। কিন্তু টাইগার বোলারদের কল্যাণে সকালে তৃতীয় দিনের শুরুটা দুর্দান্ত করে বাংলাদেশ ইমার্জিং দল। দিনের খেলা শুরুর কিছুক্ষণের মধ্যেই আগেরদিনের অপরাজিত ব্যাটসম্যান প্রমোদ মাদুওয়ান্থাকে ৪৪ রানে ফিরিয়ে দিয়ে ৮২ রানের জুটি ভাঙেন তানভির ইসলাম। এই জুটি ভাঙার কিছুক্ষণ পরেই হানা দেয় বৃষ্টি। বৃষ্টিতে খেলা প্রায় তিন ঘণ্টার মত বন্ধ থাকার পর আবার খেলা শুরু হলে রমেশ মেন্দিসকে হারায় শ্রীলঙ্কা। ফলে ৬ উইকেটে ১৯০ রান নিয়ে দিনশেষ করে তারা।

দ্বিতীয় দিনে নাঈম হাসান ঘূর্ণি জাদুতে মাত্র ৫৯ রানেই ৪ উইকেট হারিয়ে মহাবিপদে পড়ে লঙ্কানরা। পরে মাদুওয়ান্থা ও বান্দারার ব্যাটে ৪ উইকেটে ১০১ রান নিয়ে দিনশেষ করেছিল লঙ্কানরা।

অন্যদিকে নাজমুল হাসান শান্ত’র দুর্দান্ত শতকে প্রথম ইনিংসে ৩৬০ রানে অল আউট হয় বাংলাদেশ।

সংক্ষিপ্ত স্কোর কার্ড-বাংলাদেশ হাই পারফরম্যান্স (১ম ইনিংসে): ১৩৫.৪ ওভারে ৩৬০/১০

সাইফ ১৮, নাইম ৮, শান্ত ১৩৩, ইয়াসির ৪, আফিফ ৫৪, জাকির ৪৯, মাহিদুল ৪, নাঈম ৩৬, ইয়াসিন ১২, তানভির ১৬*, শফিকুল ১; মেন্ডিস ২৮.৪-২-৭৩-৪।

শ্রীলঙ্কা ইমার্জিং দল (১ম ইনিংস): ১০৩.৪ ওভারে ২৪৪/১০

বান্দারা ৮৫, প্রমোদ ৪০; নাঈম ৪০-১৪-৯৩-৭, শফিকুল ২৩.৪-৬-৫৯-২, তানভির ২২-৭-৪১-১।

চতুর্থ দিনেঃ বাংলাদেশ হাই পারফরম্যান্সঃ ৩৯০/৮ (৪০.৩ ওভার)